বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ০৪:১৪ পূর্বাহ্ন

উদ্বোধনের অপেক্ষায় দৌলতপুর মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স

খবরের আলো :

 

 

দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধিঃ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে জাতীর শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ১ কোটি ৯৪ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা ব্যয়ে নির্মিত মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের নির্মান কাজ শেষ হয়েছে। উদ্বোধনের অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে রয়েছে দৃশ্যমান এ ভবনটি। নবনির্মিত ভবনটি উদ্বোধনের মাধ্যমে ৪৭ বছর পরে এই উপজেলার জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানরা নিজস্ব ভবনে বসার ঠাই পাবে। বর্তমানে দৌলতপুর উপজেলায় ভাতাভোগী মুক্তিযোদ্ধার সংখ্যা ১১৭০ জন, এর মধ্যে ৭০ জন যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা। বিভিন্ন দপ্তরের নিজস্ব ভবন থাকলেও মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য কোন আধুনিক ভবন ছিলো না এই উপজেলায়।
সরেজমিনে গতকাল বুধবার সকালে দেখা যায়, মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনটির নির্মাণ কাজ শেষ হয়ে গেছে। উদ্বোধন না হওয়ায় দৃশ্যমান এ ভবনটি এখন বন্ধ রয়েছে।

দৌলতপুর উপজেলা প্রকৌশলী অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, ‘মুক্তিযোদ্ধাদের দুর্ভোগ লাঘবে ‘জায়গা প্রাপ্তি সাপেক্ষে’ প্রতিটি উপজেলায় একটি করে আধুনিক মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে বর্তমান সরকার। এই ধারাবাহিকতায় দৌলতপুর উপজেলায় একটি আধুনিক মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণের বরাদ্ধ হয়। দৌলতপুর উপজেলার প্রধান সড়কের পাশে লতিফ মোড় নামক স্থানে আট শতক জমির উপরে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মান কাজের শুভ উদ্বোধন করেন রেজাউল হক চৌধুরী এমপি। ৩ তলা বিশিষ্ট এ ভবনের নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে ২০১৮ সালে । নির্মান কাজ ২০১৮ সালে শেষ হলেও এখন পর্যন্ত ভবনটি হস্তান্তর করা হয়নি।
উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার দবির উদ্দিন বলেন,‘আজকের স্বাধীন বাংলাদেশের জন্য দীর্ঘ ৯ মাস আমরা যুদ্ধ করেছি। স্বাধীনতার ৪৭ বছর পেরিয়ে গেলেও আমাদের বসার জন্য কোন আধুনিক ভবন এই উপজেলায় ছিলোনা। বর্তমান সরকারের উদ্যোগে আমাদের সেই প্রানের দাবি পূরণ হতে চলেছে। তবে ভবনটি নির্মান কাজ শেষ হলেও এখনো আমরা ব্যবহার করতে পারছিনা এটা আমাদের জন্য দুঃখজনক।

দৌলতপুর উপজেলা প্রকৌশলী জিল্লুর রহমান বলেন, ‘আমরা অত্যন্ত আন্তরিকতার সহিত উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মানের কাজ শেষ করেছি এবং অল্পদিনে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট ভবনটি হস্তান্তর করব। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের অনুমতি সাপেক্ষে খুব দ্রæত ভবনটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের মাধ্যমে জতির শ্রেষ্ট সন্তানরা নিজস্ব ভবনে উঠবেন।’
দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার আমার সংবাদকে কে বলেন, ‘নবনির্মিত উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মান কাজ শেষ হয়েছে, অল্পদিনে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান আমাদের কাছে ভবনটি হস্তান্তর করবে। আমরা হাতে পেলেই জেলাতে জানাব । ভবনটি মুুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয়ের উদ্বোধন করার কথা তবে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে অফিসিয়াল কিছু কাজ শেষে আশা করছি খুব দ্রæত ভবনটির উদ্বোধনের মাধ্যমে জাতির শ্রেষ্ট সন্তানদের মাঝে হস্তান্তর করা হবে।’

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com