মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ০২:৫৪ অপরাহ্ন

মূসক সম্মাননা পাচ্ছে ১৪৪ প্রতিষ্ঠান

খবরের আলো :

 

 

সোমবার, ০২ ডিসেম্বর : সর্বোচ্চ মূল্য সংযোজন কর (মূসক) পরিশোধকারী ১৪৪ প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কৃত করা হচ্ছে। এর মধ্যে জাতীয় পর্যায়ে ৯টি প্রতিষ্ঠান এবং জেলা পর্যায়ে ১৩৫টি প্রতিষ্ঠানকে ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরের জন্য পুরস্কৃত করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

আগামী ১০ ডিসেম্বর জাতীয় ভ্যাট দিবসে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠেয় জাতীয় ভ্যাট দিবসে জাতীয় পর্যায়ে এবং ঢাকাস্থ মুসক কমিশনারেট সংশ্লিষ্ট জেলা পর্যায়ের সর্বোচ্চ মূসক পরিশোধকারীদের (ঢাকার বাইরে অবস্থিত অন্যান্য মূসক কমিশনারেট কর্তৃক তাদের আওতাধীন জেলা পর্যায়ে পুরস্কার প্রদানের আয়োজন করা হবে) সম্মাননাপত্র ও ক্রেস্ট প্রদান সংক্রান্ত অনুষ্ঠান আয়োজন করা হবে। অর্থ মন্ত্রণালয় ও অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগ (আইআরডি) সূত্রে এ তথ‌্য জানা গেছে।

মূল্য সংযোজন কর (মূসক) বিষয়ে জনসচেতনতা সৃষ্টি ও মূল্য সংযোজন কর পরিশোধে করদাতাদের মধ্যে উৎসাহ ও প্রণোদনা দেয়ার লক্ষ্যে জাতীয় ও জেলা পর্যায়ে সর্বোচ্চ মূসক পরিশোধকারী প্রতিষ্ঠানকে অর্থ বছরভিত্তিক পুরস্কার প্রদানের সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগ থেকে ‘সর্বোচ্চ মূল্য সংযোজন কর পরিশোধকারী প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কার প্রদান নীতিমালা, ২০০৫ (সংশোধিত) প্রণয়ন করা হয়। উক্ত নীতিমালার আলোকে উৎপাদন, সেবা ও ব্যবসা এই তিনটি খাতের প্রতিটিতে জেলা পর্যায়ে ১টি এবং জাতীয় পর্যায়ে ৩টি করে প্রতিষ্ঠানকে সর্বোচ্চ মূসক প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে পুরস্কার বা সম্মাননা প্রদানের বিধান রয়েছে।

সর্বোচ্চ মূসক পরিশোধকারী প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কার প্রদানে মনোনয়নের জন্য যোগ্যতার ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানকে পূর্ববর্তী অর্থবছর অপেক্ষা রাজস্ব পরিশোধে ন্যূনতম ১০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন করতে হবে। তবে, কোন প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে রাজস্ব সংক্রান্ত বিষয়ে কোন মামলা কোন আদালত/ট্রাইব্যুনালে বিচারাধীন থাকলে, প্রতিষ্ঠানটি রাজস্ব সংক্রান্ত বিষয়ে কোনো অপরাধের দায়ে দোষী সাব্যস্ত হলে, প্রতিষ্ঠানের কাছে সরকারের প্রাপ্য কোন কর বকেয়া থাকলে কিংবা ব্যাংকসহ কোনো অর্থলগ্নী প্রতিষ্ঠানের কাছে ঋণখেলাপি হলে, কাস্টমস অ্যাক্ট, ১৯৬৯ এবং ইনকাম ট্যাক্স অর্ডিন্যান্স, ১৯৮ এর অধীন কোনো প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে শস্তিমূলক ব্যবস্থা বহাল থাকলে উক্ত প্রতিষ্ঠান মনোনয়ন অযোগ্য বিবেচিত হবে।

উক্ত নীতিমালার শর্ত ও বিধান মেনে জাতীয় ও জেলা পর্যায়ে সর্বোচ্চ করদাতাদের প্রাথমিক তালিকা মূসক কমিশনারেটসমূহ থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে। প্রাথমিক তালিকাভুক্ত এসব প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে সরকারের কোনো বকেয়া পাওনা অথবা ব্যাংক বা অর্থলগ্নী প্রতিষ্ঠানের কাছে ঋণখেলাপি আছে কিনা অথবা তাদের বিরুদ্ধে রাজস্ব সংক্রান্ত অপরাধের দায়ে দোষী সাব্যস্ত হওয়ার প্রমাণ অথবা রাজস্ব সংক্রান্ত কোনো মামলা চলমান আছে কিনা সেসব বিষয়ের নীতিমালার বিধান অনুসারে মূসক অনুবিভাগ, শুল্ক অনুবিভাগ, আয়কর অনুবিভাগ ও বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড ও এফবিসিসিআইয়ের প্রতিনিধির সমন্বয়ে এবং জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য (মূসক-বাস্তবায়ন ও আইটি) এর নেতৃত্বে এ উদ্দেশ্যে গঠিত পুরস্কার মনোনয়ন কমিটি মাঠ পর্যায়ের মূসক কমিশনারেট, বাংলাদেশ ব্যাংক, মূসক অনুবিভাগ, আয়কর বিভাগ এবং শুল্ক অনুবিভাগ থেকে প্রাপ্ত তথ্যাদি পরীক্ষা করে জাতীয পর্যায়ে ৯টি এবং জেলা পর্যায়ে ১৩৫টি সর্বমোট ১৪৪টি প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কার দেয়ার মনোনয়নের সুপারিশ করা হয়েছে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com