রবিবার, ১২ জানুয়ারী ২০২০, ১০:০৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
সলঙ্গায় স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ মাধবপুরে যৌতুকের শিকার গৃহবধু হাসপাতালে ভোলার দৌলতখানে লাইজু হত্যার অাসামীদের গ্রেপ্তার দাবী‌তে ৩য় দফা মানববন্ধন ও বি‌ক্ষোভ ভোলায় অস্ত্রসহ ২ জলদস্যু আটক বিশ্ব ইজতেমা২০২০ ১ম প‌র্বের আখেরি মোনাজাতে অংশ নিলেন প্রধানমন্ত্রী আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে টঙ্গীর তুরাগ তীরে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব শেষ ঝালকাঠিতে জমি নিয়ে বিরোধ, প্রতিপক্ষের হামলায় এক ব্যক্তি নিহত, আটক-১ বিএনপির নারী কাউন্সিলর প্রার্থীর অফিস ও বাসায় ভাঙচুর বিমান ধসের দায় স্বীকার করায় ইরান সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ ইরাকের তেল রাজস্ব আটকে রাখার হুমকি ট্রাম্প সরকারের

মাধবপুরে যৌতুকের শিকার গৃহবধু হাসপাতালে

খবরের আলো :

 

 

মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি : হবিগঞ্জের মাধবপুরে যৌতুকের জন্য এক গৃহবধু কে ঘরে আটকে রেখে নির্যাতন করা হয়েছে। নির্যাতনে গৃহবধুর চেহারা তেতলে গেছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নির্যাতিত গৃহবধু কে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর আধুনিক হাসপাতালে প্রেরন করে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বৈষ্ণবপুর গ্রামে। এ ব্যাপারে গৃহবধু ফারজানার ভাই শাহাদাত হোসেন নয়ন বাদি হয়ে নির্যাািতত গৃহবধুর স্বামী শফিকুল ইসলাম বাবুল কে প্রধান আসামী করে মাধবপুর থানায় শনিবার সকালে একটি অভিযোগ দিয়েছেন। লিখিত অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, উপজেলার দেবপুর গ্রামের ইয়াকুব আলীর মেয়ে ফারজানা আক্তার হেপি কে ২০১৪ সালের ১৩ জুলাই বিয়ে দেওয়া হয় উপজেলার বৈষ্ণবপুর গ্রামের মৃত ইমতিয়াজ আলীর ছেলে শফিকুল ইসলাম বাবুল সঙ্গে। বিয়ের সময় যৌতুক বাবদ নগদ সাড়ে ৩ লাখ টাকা সহ ৫ লাখ টাকার মালামাল দেওয়া হয়। বিয়ের ২ বছর পর বিদেশ যেতে শফিকুল ইসলাম বাবু ফারজানার পরিবারের নিকট ৩ লাখ টাকা দাবি করেন। মেয়ের সুখের দিক চিন্তা করে ফারজানার পরিবার ৩ লাখ টাকা দিয়ে তাকে বিদেশ পাঠান। বছর তিনেক বাবুল বিদেশ থেকে দেশে চলে আসে। বিদেশ থেকে আসার পর বাবুল বেকার হয়ে গেলে আবার ফারজানা কে তার বাবার বাড়ি থেকে টাকা এনে দিতে চাপ দিতে থাকে। টাকা না দিতে পারায় গত শুক্রবার ফারজানা কে তার স্বামী বাবুল ঘরে আটক রেখে অমানষিক নির্যাতন করে। এতে ফারজানার মুখ তেতলে যায়। চোখের নিচে কাল ফুসকা পরে। খবর পেয়ে ফারজানার ভাই মাধবপুর থানা পুলিশ কে সঙ্গে নিয়ে ফারজানার শ^শুর বাড়িতে গিয়ে গৃহবধু ফারজানা কে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর আধুনিক হাসপাতালে প্রেরণ করেন। মাধবপুর থানার ওসি ইকবাল হোসেন জানান, এ ব্যাপারে একটি অভিযোগ পেয়েছি। আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com