জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা
৫৫দিন
:
১৯ঘণ্টা
:
৪৩মিনিট
:
৩৭সেকেন্ড

শুক্রবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০২:০৯ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালনে মাদ্রিদে প্রস্তুতি সভা সিরাজগঞ্জে সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে সন্ত্রাসী হামলায় ৫ সাংবাদিক আহত ধামরাইয়ে প্রগতি মহিলা সমবায় সমিতির উদ্যোগে চতুর্থ বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত ঝিনাইদহে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে সড়ক আলপনা কুয়াকাটায় পাউবোর জমিতে তোলা হচ্ছে অবৈধ স্থাপনা কলাপাড়ায় তামাকজাত দ্রব্যের প্রচার ও পৃষ্ঠপোষকতা নিষিদ্ধকরণ বিষয়ক কর্মশালাকলাপাড়ায় তামাকজাত দ্রব্যের প্রচার ও পৃষ্ঠপোষকতা নিষিদ্ধকরণ বিষয়ক কর্মশালা বগুড়ায় বাস থেকে নামিয়ে প্রকাশ্যে বিএনপিকর্মীকে কুপিয়ে হত্যা! শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য প্রস্তুত কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার গুণীজনদের হাতে একুশে পদক তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী ভোলা-৪ আসনের সংসদ সদস্য জ্যাকবের বিরুদ্ধে কমিশন বাণিজ্যের অভিযোগে সাংবাদ সম্মেলন

বিয়ে ছাড়াই মা হলেন চিকিৎসক শিউলি!

খবরের আলো ডেস্ক :

 

 

বিয়ে না করে পুরুষের সঙ্গম ছাড়াই স্পার্ম ব্যাঙ্ক থেকে শুক্রাণু নিয়ে মা হয়েছেন বাঙালি চিকিৎসক শিউলি। অবশ্য এজন্য তার লড়াইও কম করতে হয়নি। এই চিকিৎসকের মা হওয়ার পর থেকে আশঙ্কা করা হচ্ছে বিবাহ প্রথা বেশি দিন টিকে থাকবে না। সন্তান জন্মদানে পুরুষের ভূমিকা গৌণ তা প্রমাণ করলেন ওই নারী।

এখন থেকে আর নারী নির্যাতন হবে না। এখন দেখার বিষয় বাঙালি নারীরা এ পন্থা অবলম্বন করে কি না? খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

বাঙালি ডাক্তার প্রমাণ করলেন, বাঙালিরাই পথ দেখাবে সচেতনতার ও বিজ্ঞানের নানা কীর্তির। তারা আলোর দিশা। অন্ধকার অচলায়তন ভেঙে শিখা চিরন্তন শিউলি মুখোপাধ্যায়। নিজেকে নিয়ে গেলেন অনন্য উচ্চতায়।

কলকাতায় ‘একক মাতৃত্ব’ নিয়ে সচেতনতা সৃষ্টিতে দীর্ঘদিন কাজ করছেন তিনি। বন্ধ্যাত্ব নিরসন তার যেনো উপাসনা। শত নারীর মুখে মাতৃত্বের হাসি ফোটানো। বিভিন্ন নারীকে তিনি মাতৃত্বের স্বাদ গ্রহণের সুযোগও করে দেন সেবার ভিত্তিতে ন্যূনতম খরচে। এবার নিজেই সেই পথে হাঁটলেন।

ডা. শিউলি মুখোপাধ্যায় কলকাতার বাসিন্দা। দেড় বছর আগে তিনি একক মাতৃত্বের পথে হাঁটার সিদ্ধান্ত নেন। তার একাকিত্ব ঘোঁচাতে ও অন্যদের উৎসাহিত করতে তিনি এ সিদ্ধান্ত নেন বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন। সেই ভাবনা থেকেই অবিবাহিত শিউলি এখন এক পুত্র সন্তানের মা।

৩৯ বছরের শিউলিদেবী ছেলের নাম রেখেছেন ‘রণ’। তবে ছেলের জন্মের পরেই এক তিক্ত অ`ভিজ্ঞতা হয়েছে শিউলির। তিনি বলেন, ছেলের জন্মের কাগজপত্রে বাবার নামের জায়গায় কী লিখবেন সেটা বুঝে উঠতে পারছিলেন না।

তিনি জানান, শেষে আদালতে এফিডেভিট করে এবং সিঙ্গল মাদারের ক্ষেত্রে কলকাতা পৌরসভার দেয়া একটি শিশুর জন্মের কাগজপত্রের কপি ও সুপ্রিম কোর্টের রায়ের কাগজপত্র পৌরসভায় জমা দেয়ার পরেই নিজের সন্তানের কাগজপত্র তৈরি হয়।

শি`শু বয়স থেকেই রণকে সিঙ্গেল পেরেন্ট বা সিঙ্গল মাদারের বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা বোঝাতে চান শিউলি। শনিবার নিজের বেসরকারি হাসপাতালে বসে তিনি বলেন, ‘ছোট থেকেই ওকে বুঝিয়ে দিলে বড় হয়ে আর মনে কোনও সংশয় থাকবে না।’

প্রায় ১১ বছর আগে স্ত্রী-রোগ চিকিৎসক হিসেবে কাজ শুরু করার পরে তার হাতেই জন্ম হয়েছে অসংখ্য শিশুর। তবে সিজারিয়ান করে ছেলের জন্মের পরে প্রথম তাকে কোলে নেওয়ার অনুভূতি একেবারে অন্যরকম বলেই জানান তিনি।

শিউলিদেবী জানান, এমডি পড়ার সময় থেকেই বাড়ি থেকে তাকে বিয়ের জন্য চাপ দেয়া শুরু হয়। কিন্তু বিয়ে বিষয়টি ছিল তার অপছন্দের।

শিউলি বলেন, ‘বয়স বাড়ার সঙ্গে ক্রমশ একাকীত্বও বাড়ছিল। অল্পতেই রেগে যাচ্ছিলাম। তখনই এই সিদ্ধান্ত নিলাম।’ এর পরেই বাবা-মায়ের সঙ্গে আলোচনা করে পাকাপাকিভাবে সিঙ্গেল পেরেন্ট হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন তিনি। নিজের হাসপাতালের স্পার্ম ব্যাঙ্ক থেকে শুক্রাণু নিয়ে প্রবেশ করানো হয় তার শরীরে। হায়দরাবাদ ও মালদহের দুই মহিলাও তার চিকিৎসাতে সিঙ্গেল মাদার হতে চলেছেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com