জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা
৫৫দিন
:
১৯ঘণ্টা
:
৪৩মিনিট
:
৩৭সেকেন্ড

শনিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৫:২৫ পূর্বাহ্ন

খেপুপাড়া সরকারী মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক’র বিরুদ্ধে ১৩ লক্ষ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

খবরের আলো :

 

 

হাবিবুর রহমান মাসুদ, পটুয়াখালী প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় খেপুপাড়া সরকারী মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুর রহিম সহ ৫ জনের বিরুদ্ধে ১৩ লক্ষ টাকা আত্মসাত ও প্রতারনার অভিযোগ সম্পর্কিত বিষয়ে সহকারী কমিশনার (ভূমি)কে ৪০ দিনের মধ্যে তদন্তর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। বিজ্ঞ কলাপাড়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট শোভন শাহরিয়ার’র আদালত বৃহস্পতিবার (১৩ ফেব্রæয়ারী) এ আদেশ প্রদান করেন।

আদালত ও মামলা সূত্রে জানা যায়, প্রধান শিক্ষক আবদুর রহিম সহ ৫ জন কুয়াকাটার ব্যবসায়ী মিলন হাওলাদার ও তার ব্যবসায়ী বন্ধুর নিকট থেকে ২০ আগষ্ট ২০১৬ লতাচাপলি মৌজার ৪০ শতাংশ জমি বিক্রয়ের জন্য ৩০০ টাকার নন জুডিসিয়াল ষ্ট্যাম্পে স্বাক্ষর করে ১৩ লক্ষ টাকা গ্রহন করেন। এরপর দীর্ঘদিনেও বাদীর পাওনা টাকা ও তার অনুকূলে উক্ত পরিমান সম্পত্তির দলিল রেজিষ্ট্রী করে দেননি। বিষয়টির সুষ্ঠু সমাধানের লক্ষে ইতোপূর্বে লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে মহিপুর থানা পুলিশ উদ্দোগ নিয়েও কোন ফল হয়নি। পরবর্তীতে ইউএনও কলাপাড়াকে বিষয়টি জ্ঞাত করার পর তিনি ফৌজদারী মামলা করার পরামর্শ দেয়ায় ভুক্তভোগী মিলন হাওলাদার বিজ্ঞ আদালতে বৃহস্পতিবার প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে এ মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়ে খেপুপাড়া সরকারী মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুর রহিম বাদীর অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, মামলায় বর্নিত ১৩ লক্ষ টাকা সে পাবেনা। টাকার পরিমান আরও কম হবে। তবে এটি সমাধান করা হবে বলে জানান তিনি।

কলাপাড়া সহকারী কমিশনার (ভূমি) অনুপ দাশ বলেন, এ বিষয়ে তিনি জ্ঞাত নন। আদালতের আদেশ পেয়ে নির্দেশিত সময়ের মধ্যে তদন্ত কার্যক্রম সম্পন্ন করে বিজ্ঞ আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করা হবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com