জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা
৫৫দিন
:
১৯ঘণ্টা
:
৪৩মিনিট
:
৩৭সেকেন্ড

শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০, ০৮:০৫ পূর্বাহ্ন

ঈদের এক সপ্তাহ পর হিফজখানা খুলে দেয়ার দাবি

খবরের আলো:

 

বুধবার, ২৯ এপ্রিল :ঈদ-উল-ফিতরের এক সপ্তাহ পর সাস্থ্যবিধি পালনের শর্ত সাপেক্ষে হিফজ মাদরাসাগুলো খুলে দেয়ার দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ প্রাইভেট মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান আন্তর্জাতিক হাফেজ কারি শায়েখ নেছার আহমাদ আন নাছিরী।

বুধবার (২৯ এপ্রিল) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে স্মারকলিপি প্রদানের উদ্দেশ্য যাত্রার পূর্বে তিনি এই দাবি জানান।

প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনি বলেন, করোনা ভাইরাসের এই মহামারিতে শর্তসাপেক্ষে গার্মেন্টসসহ অনেক শিল্প-কলকারখানা ও হাটবাজার খোলা রয়েছে, তাহলে শর্তসাপেক্ষে কেন হিফজখানাগুলো খোলা দেয়া হচ্ছে না?

তিনি আরও বলেন, আপনি ভোর বেলায় কুরআন তিলাওয়াত দিয়ে আপনার কার্যক্রম শুরু করেন,তাই আমরাও চাই স্বাস্থ্যবিধি শর্ত সাপেক্ষে বাংলাদেশের সকল হিখজখানাগুলো খুলে দেয়া হোক।

বিশ্বে কোরআন প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের সাফল্যের কথা উল্লেখ করে শায়েখ নেছার আহমাদ আন নাছিরী বলেন, প্রধানমন্ত্রী, আপনি জেনে আনন্দিত হবেন যে প্রতিবছর এই সমস্ত প্রাইভেট মাদরাসার ছাত্ররা বিশ্ব কুরআন প্রতিযোগিতায় বিভিন্ন রাষ্ট্রে প্রথমস্থান অর্জন করে বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশের লাল সবুজের পতাকাকে উড্ডীন করে আসছে।

শেখ হাসিনা সরকারকে কওমী মাদরাসার স্বীকৃতির কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে তিনি বলেন, আপনি এ দেশের উলামায়ে কেরামদের প্রাণের দাবি, কওমী মাদরাসার আলেমদের স্বীকৃতি (সনদ) প্রদান করেছেন। আমরা আশাবাদি আপনি এদেশের হাফেজদের জন্য এই দাবি গুলো পুরণ করবেন। এটাই আপনার নিকট আমাদের প্রত্যাশা। সুতরাং হিফজখানা গুলো দেশের কল্যাণে দ্রুত খুলে দেয়ার দাবি জানাচ্ছি।

অন্যান্য বক্তাগণ বলেন, দীর্ঘ সময় হিফজ মাদরাসা বন্ধ থাকিলে হাফেজ ছাত্ররা তাদের হিফজ চর্চা থেকে দুরে সরে হিফজ ভুলে যাওয়ার সম্ভবনা রয়েছে। তাই ঈদ-উল-ফিতরের এক সপ্তাহ পর হিফজখানা খুলে দেয়ার আহ্বন জানান।

এদিকে আজ দুপুর পৌনে ২টায় জাতীয় প্রেসক্লাব থেকে একটি প্রতিনিধি দল গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে একটি স্মারকলিপি প্রদান করতে যান। এসময় তাদের কাছ থেকে স্মারকলিপি গ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সিনিয়র অফিসার জনাব নিজাম উদ্দিন।

প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি এই বোর্ডের চেয়ারম্যান শায়েখ নেছার আহমাদ আন নাছিরীর কয়েকটি যৌক্তিক দাবির মধ্যে রয়েছে ঈদুল ফিতরের এক সপ্তাহ পর হিফজখানাগুলো খুলে দেয়া।

এময় উপস্থিত ছিলেন শায়েখ নেছার আহমাদ আন নাছিরী মুফতি মিজানুর রহমান, মুফতি শরীফুল্লাহ, মুফতি তাওহিদুল ইসলাম, হাফেজ কারী হেদায়েতুল্লাহ, মুহাম্মদ মাহমুদুল হাসান সহ কেন্দ্রীয় কমিটির অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com