জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা
৫৫দিন
:
১৯ঘণ্টা
:
৪৩মিনিট
:
৩৭সেকেন্ড

শনিবার, ৩০ মে ২০২০, ১১:৫৩ পূর্বাহ্ন

নীলফামারীতে পুলিশ পেটানোর মামলায় পুরুষ শূন্য গ্রাম

খবরের আলো:
 
 
 
 
নীলফামারী প্রতিনীধিঃ নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার পুটিমারী কালিকাপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে পুলিশ-এলাকাবাসীর মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়।
সংঘর্ষের এক পর্যায়ে পুলিশ পরিদর্শকে ব্যাপক মারধর করে গ্রামবাসী। পুলিশ পেটানোর ঘটনায় এসআই আব্দুল আজিজ বাদী হয়ে ২৬ জনের নামীয় এজহার করে। অজ্ঞাত ১২০০’শ গ্রামবাসিকে আসামি করে মামলা করছে পুলিশ। এলাকাবাসী গ্রেফতারের আতংকে পুরুষ শুন্য হয়ে পড়ছে গ্রামটি।
ঘটনার দিন দুই গ্রুপের সংঘর্ষে এদের মধ্যে গুরুতর আহত কিশোরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুল ওয়াহাব রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং কিশোরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে, এক দম্পক্তিকে ভর্তি করা হয়েছে। ৪ জন নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
এলাকাবাসী জানায়, এই জমিতে কিছু দিন আগে বাঁশ কেটে নিয়ে যায় সাইদুল ইসলমের ও তার বাহিনী পড়ে গ্রামের মৃত ঈসা উদ্দিনের ছেলে তছলিম উদ্দিন ১২ জনকে আসামি করে গত ১৪-০৩-২০২০ মামলা করেন।
সোমবার ১১ টায় পুনরায় বাঁশের মুরা তুলতে গেলে সাইদুল ইসলাম ও তার বাহিনী বাধা মুখে পরে। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে আবার শুরু হয় দু গ্রুপের সংর্ঘষ।
এ সময় এলাকাবাসী ৯৯৯’এ ফোন করে পুলিশের সাহায্য চায়। খবর পেয়ে কিশোরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে এলে তছলিম উদ্দিনের মামলার তদন্ত কারি এসআই আব্দুল ওয়হাবকে দেখে উপহাস করেন এলাকাবাসী শুরু হয় পুলিশের কথাকাটির এক পর্যায়ে ফের সংঘর্ষে জরায় পুলিশের পরিদর্শকের উপর চড়াও হয়ে বেধরক মারপিট করে।
মঙ্গলবার বিকালে সরেজমিনে গেলে এলাকাবাসী জানায়, এক বৃদ্বা জানায় আমি বুড়া মানুষ পুলিশ নিয়ে গেলে যাক। যেহেতু অপরাধ করছে এলাকাবাসী। বর্তমানে বৃদ্বা ছাড়া কোন পুরুষ নেই, গ্রেফতারের আতংকে পুরুষ শুন্য হয়ে পড়ছে গ্রামটি।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com