বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৭:১৭ অপরাহ্ন

সাতক্ষীরা সদরে ধানের শীষ প্রতিকের বিপুল সংখ্যক পোস্টার ছিড়ে ফেলার অভিযোগ

খবরের আলো :

 

 

শেখ আমিনুর হোসেন,সাতক্ষীরা ব্যুরো চীফ : সাতক্ষীরার সদর আসনের বৈকারি, ঘোনা ও আলিপুর ইউনিয়নে ধানের শীষ প্রতিকের বিপুল সংখ্যাক পোস্টার সন্ত্রাসীরা ছিড়ে ফেলছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তারা এসময় সদর উপজেলার বৈকারি ইউনয়নের কয়েকটি বাড়িতে হামলা, একটি দোকান ভাংচুর ও বিএনপি সমর্থক কয়েক ব্যক্তিকে মারপিট করেছে। সোমবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।
সাতক্ষীরা জেলা জামায়াতের প্রচার সম্পাদক আজিজুর রহমান এ অভিযোগ করেন।
সাতক্ষীরা সদর উপজেলা কৃষকদলের সভাপতি সাবেক ইউপি সদস্য গোলাম সরোয়ার জানান, সোমবার সন্ধ্যায় তাদের কর্মী সমর্থকরা বৈকারি ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে পোস্টার লাগাই। এ সময় একদল যুবক কাথন্ডা বাজার ও নাপিতঘাটা এলাকায় ধানের শীষের পোস্টার ছিড়ে এতে আগুন ধরিয়ে দেয়। একই সময় তারা নুরুল মুন্সি, সাবেক ইউপি সদস্য জালাল ও খালেক হাজরার বাড়িতে হামলা চালিয়ে মারপিট করে চলে যায়। পরে তারা নাপিতঘাটায় একটি সারের দোকান তছনছ করে।
স্হানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের ছেলে ও যুবলীগ নেতা ইনজামামুল ইসলাম ইঞ্জার নেতৃত্ব বৈকারী ইউনিয়নে এসব ঘটনা ঘটে বল অভিযোগ করা হয়েছে।
তবে ইনজামামুল এ অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, আমি এ ব্যাপারে কিছুই জানিনা।
এদিকে, আলিপুর ও ঘোনা ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে ধানের শীষ প্রতিকের বিপুল সংখ্যক পোস্টার সন্রাসীরা ছিড়ে ফেলে দিয়েছে বলে অভিযোগ করছেন ধানের শীষ প্রতিকের কর্মী-সমর্থকসহ জেলা জামায়াতের প্রচার সম্পাদক আজিজুর রহমান। তবে,ঘোনা ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান মুশা বিষয়টি অস্বীকার করেন।
অপরদিকে, পুলিশ রাতে বৈকারি ইউনিয়ন থেকে জাময়াত নেতা সাবেক ইউপি সদস্য জালালসহ তিনজনকে নাশকতার একটি মামলায় গ্রেফতার করছে।
সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান জানান, জাময়াত নেতা জালাল মেম্বরসহ তিন জামায়াত নেতা-কর্মীকে দেশী তৈরী একটি রিভলবারসহ গ্রফতার করা হয়েছে। ওসি আরো জানান, আগামী ১২ তারিখের আগে নির্বাচনী পোষ্টার মারা সম্পূর্ণ অবৈধ। কেউ
কোন পোষ্টার মারলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com