সোমবার, ২৩ নভেম্বর ২০২০, ০২:৪০ অপরাহ্ন

পাঁচ রাজ্যে ভরাডুবি বিজেপির, তিন রাজ্যে এগিয়ে কংগ্রেস

খবরের আলো  ডেস্ক :

 

 

মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান, ছত্তিশগড়, তেলেঙ্গানা ও মিজোরাম-ভারতের এই পাঁচ রাজ্যে বিধানসভার নির্বাচনে বিপর্যস্ত ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপি। বিজেপি শাসিত মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান ও ছত্তিশগড়ে এবার পালা বদলের ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে।

মধ্যপ্রদেশের ২৩০ আসনের মধ্যে ম্যাজিক ফিগার ১১৬। সেখানে কংগ্রেস রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ১০৪টি আসনে এগিয়ে। বিজেপি এগিয়ে রয়েছে ৯৬টি আসনে।

রাজস্থানের ১৯৯টি আসনের মধ্যে ম্যাজিক ফিগার ১০১। সেখানে কংগ্রেস ১০১টি আসনে এগিয়ে থেকে সংখ্যাগরিষ্ঠতার পথে এগিয়ে চলেছে। বিজেপি এগিয়ে ৭৮টি আসনে।

৯০ আসন বিশিষ্ট ছত্তিশগড় রাজ্যে ম্যাজিক ফিগার ৪৬। এই রাজ্যে কংগ্রেস ৫২টি আসনে এগিয়ে রয়েছে। ২৫টি আসনে এগিয়ে বিজেপি।

অন্যদিকে দক্ষিণ ভারতের তেলেঙ্গানা রাজ্যে ক্ষমতাসীন দল তেলেঙ্গানা রাষ্ট্রীয় সমিতি (টিআরএস)-ই ফের ক্ষমতায় আসতে চলেছে। তেলেঙ্গানায় ১১৯টি আসনের মধ্যে টিআরএস-এআইএমআইএম জোট ৮২টি আসনে এগিয়ে রয়েছে। টিডিপি-কংগ্রেস জোট এগিয়ে ২৫ আসনে, বিজেপি এগিয়ে রয়েছে ৬টিতে। এই রাজ্যে ফের মুখ্যমন্ত্রীর পদে কে. চন্দ্রশেখর রাও’এর বসাটা একপ্রকার নিশ্চিত।

উত্তর-পূর্ব ভারতের মিজোরামে ক্ষমতাসীন দল জাতীয় কংগ্রেস-এর তুলনায় ভাল ফল করতে চলেছে বিরোধীদল মিজো ন্যাশনাল ফ্রন্ট (এমএনএফ)।

রাজ্যটির ৪০টি আসনের মধ্যে এমএনএফ ২৫টি আসনে এগিয়ে রয়েছে, ১০ আসনে এগিয়ে রয়েছে কংগ্রেস। বিজেপি এগিয়ে মাত্র ১টি আসনে।

বিজেপি শাসিত তিন রাজ্যে কংগ্রেসের এগিয়ে থাকার খবর আসতেই এই তিন রাজ্যে কংগ্রেসের কার্যালয়ে উৎসব শুরু হয়ে গেছে। আবীর খেলার সাথে সাথে চলছে মিষ্টি মুখের পালা।

দিল্লিতেও দলের সভাপতি রাহুল গান্ধীর বাসভবনের বাইরে উৎসবে মেতেছেন কংগ্রেস কর্মী-সমর্থকরা। রাহুল, সোনিয়া, বোন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী, কংগ্রেস নেতা কমল নাথসহ কয়েকজনের ছবি সামনে রেখে রীতিমতো যজ্ঞ অনুষ্ঠান চালানো হয়।

অন্যদিকে বিজেপি দলীয় অফিসগুলোতে ভাঙা হাটের ছবি। আগামী বছরে দেশটিতে লোকসভা নির্বাচন। তার আগে পাঁচ রাজ্যের এই বিধানসভার নির্বাচন কার্যত সেমিফাইনাল। স্বভাবতই দেশের রাজনৈতিক মহলের নজর রয়েছে এই নির্বাচনের ফলাফলের দিকে। বিশেষজ্ঞদের ধারণা, বিধানসভা ভোটের ফলাফলের প্রভাব পড়তে পারে আগামী লোকসভা নির্বাচনেও।

পর্যবেক্ষকদের অভিমত এই নির্বাচনে বিজেপির ব্যর্থতার পিছনে রয়েছে মোদি সরকারের কংর্মস্থান বা কৃষকদের আয় নিয়ে যে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল তা রক্ষার ক্ষেত্রে ব্যর্থ। পাশাপাশি নোটবাতিল, জিএসটি অসংগঠিত ক্ষেত্রকে নাড়িয়ে দিয়েছে।

আর শেষ পর্যন্ত কংগ্রেস যদি এই নির্বাচনে ভাল ফল করে তবে রাহুল গান্ধীর পক্ষেও সেটি বড় সাফল্য হবে। দলের বৃহত্তর নেতৃত্বের ভূমিকা নেওয়ার পর এই জয় তার রাজনৈতিক জীবনের অন্যতম মাইলফলক হিসাবে পরিগণিত হতে পারে।

যদিও ইতোমধ্যেই পাঁচ রাজ্যের নির্বাচনী ফলাফলে বিজেপির পিছিয়ে থাকার বিষয়টি সামনে আসতেই দেশটির শেয়ার বাজারে ধস নেমেছে, পড়ে গেছে রুপির দামও।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com