বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৩:৩০ অপরাহ্ন

সোমবার দেশে আনা হবে আমজাদ হোসেনের মরদেহ

আমজাদ হোসেনের মরদেহ দেশে আনা হবে সোমবার

খবরের আলো রিপোর্ট :

 

 

কিংবদন্তি চলচ্চিত্র পরিচালক আমজাদ হোসেন। তিনি একাধারে চিত্রনাট্যকার, কাহিনিকার, গীতিকার, অভিনেতাসহ আরও অনেক গুণের অধিকারী ছিলেন। শুক্রবার (১৪ ডিসেম্বর) তিনি না ফেরার দেশে পাড়ি জমান। থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে আমজাদ হোসেনের চিকিৎসা চলছিল। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৬ বছর।তার মরদেহ সোমবার ঢাকায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন আমজাদ হোসেনের বড় ছেলে সাজ্জাদ হোসেন দোদুল। তিনি বলেন, এখানকার কিছু কাগজপত্রের ক্লিয়ারেন্সের জন্য একটু সময় লাগছে। এছাড়া ব্যাংককে আজ (রোববার) সরকারি ছুটি থাকার কারণে কাজ সম্পন্ন করতে একটু অসুবিধাও হয়েছে। তাই আগামীকাল সোমবার সকালে এখানে সব কাজ শেষ করে দ্রুত ব্যাংকক থেকে বাবার মরদেহ দেশে আনার প্রস্তুতি নেয়া হবে। আশা করছি, সব ঠিক থাকলে আগামীকালই রাতের মধ্যে বাবার মরদেহ কার্গো বিমানের মাধ্যমে ঢাকায় আসবে।জানা গেছে, ঢাকায় মোহাম্মদপুরের আদাবরের বাসার কাছে প্রথম জানাজা হবে। পরে মরদেহ রাখা হবে বারডেম হাসপাতালে। সেখান থেকে মঙ্গলবার এফডিসি ও শহীদ মিনারে নেয়া হবে। এছাড়াও আমজাদ হোসেনের জন্মস্থান জামালপুরে আরেকটি জানাজা শেষে তার স্ত্রীর ইচ্ছে অনুযায়ী ঢাকার মিরপুরের বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে তাকে সমাহিত করা হবে।আমজাদ হোসেনের স্ত্রী সুরাইয়া আকতারের ইচ্ছে তার স্বামীকে যেন মিরপুর বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে সমাহিত করা হয়। মায়ের ইচ্ছেতে ছেলে সাজ্জাদ হোসেন দোদুল এবং সোহেল আরমানও সায় দিয়েছেন।আমজাদ হোসেন ‘বাল্যবন্ধু’, ‘পিতাপুত্র’, ‘এই নিয়ে পৃথিবী’, ‘বাংলার মুখ’, ‘নয়নমণি’, ‘গোলাপী এখন ট্রেনে’, ‘সুন্দরী’, ‘কসাই’, ‘জন্ম থেকে জ্বলছি’, ‘দুই পয়সার আলতা’, ‘সখিনার যুদ্ধ’, ‘ভাত দে’, ‘হীরামতি’, ‘প্রাণের মানুষ’, ‘সুন্দরী বধূ’, ‘কাল সকালে’, ‘গোলাপী এখন ঢাকায়’, ‘গোলাপী এখন বিলেতে’র মতো দর্শকনন্দিত চলচ্চিত্র উপহার দিয়েছেন।১৯৭৮ সালে ‘গোলাপী এখন ট্রেনে’ এবং ১৯৮৪ সালে ‘ভাত দে’ চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান আমজাদ হোসেন। এছাড়া জাতীয়ভাবে তিনি অসংখ্য পুরস্কার পেয়েছেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com