বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ১২:৪০ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
মাধবপুরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শহীদ মিনার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান গাজীপুরে পোশাক নারী শ্রমিক গণধর্ষণের শিকার ত্রিশালে রাস্তার দূর্ভোগে লালপুর-কৈতরবাড়ী ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজা হলে অপরাধীদের মধ্যে ভীতিও থাকবে: কাদের ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড প্রস্তাব মন্ত্রিসভায় অনুমোদন পাহাড়পুর একিয়া ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিনব কায়দায় রোগীর সাথে প্রতারণা নবাবগঞ্জে অজ্ঞাত পরিচয় নারীর লাশ উদ্ধার মাধবপুরে করোনার ভাইরাসের সুযোগে বালু খেকোদের রমরমা ব্যবসা নৌকায় ভোট দেয়ার অপরাধে বিএনপি দলগতভাবেই এইসব অপকর্ম করেছিল -তথ্যমন্ত্রী বড়াইগ্রামে জোর পুর্বক ঘরবাড়ি ভাংচুর করে রাস্তা নির্মাণ

জাতিকে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন উপহার দিতে পেরেছি: মাহবুব তালুকদার

খবরের আলো রিপোর্ট :

 

 

জাতিকে একটি অংশীদার ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন উপহার দিতে পেরেছি বলে মন্তব্য করেছেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার। তিনি বলেন, এই প্রথম একটি অংশীদারমূলক ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন আমরা জাতিকে উপহার দিতে পেরেছি। এই নির্বাচন বাংলাদেশের নির্বাচনের ইতিহাসে একটি ঐহিত্য সৃষ্টি করবে। এই নির্বাচনের পথ ধরে পরবর্তী নির্বাচনের ধারা ইতিহাসের পাতায় লিপিবদ্ধ হয়ে থাকবে।

বৃহস্পতিবার (৩ জানুয়ারি) বিকালে আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে নির্বাচন করার  জন্য কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন  অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মাহবুব তালুকদার বলেন, আপনারা জানেন আমাদের নির্বাচনের কোনও ধারাবাহিকতা নেই, কিংবা ছিল না। আমরা কখনও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন করেছি। কখনও সেনাসমর্থিত সরকারের অধীনে নির্বাচন করেছি। কখনও নির্বাচন করেছি দলীয় সরকারের অধীনে। কিন্তু তা অংশীদারমূলক হয়নি। এবারই প্রথম অংশীদারমূলক নির্বাচন সম্ভব হল।

নির্বাচন অনুষ্ঠানকে বিশাল কর্মযজ্ঞ উল্লেখ করে এই কমিশনার বলেন, নির্বাচন যে এত বড় কর্মযজ্ঞ, সেই বিষয়ে সত্যিই আমার কোনও ধারণা ছিল না। কারণ, নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে কাজ করার কোনও সুযোগ বা নির্বাচন সচিবালয়ে কাজ করার সুযোগ আমার জীবনে হয়নি। এখানে এসে বিশাল কর্মকাণ্ড দেখে আমার জীবনে বিশাল অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করতে পেরেছি।

তিনি বলেন, এই বিশাল কর্মযজ্ঞের কেন্দ্রবিন্দু নির্বাচন কমিশনের সচিব মহোদয় ও তার নির্বাচন সৈনিকেরা। তারা যে কী নিরলস প্রচেষ্টার মাধ্যমে এই নির্বাচনকে সফল করেছে, এটি অভিজ্ঞার ঝুঁড়িতে সঞ্চয় থাকবে। প্রধান নির্বাচন কমিশনার একজন মুক্তিযোদ্ধা এবং যোদ্ধার মতো তিনি এই বিশাল কর্মযজ্ঞে সবাইকে নেতৃত্ব দিয়েছেন।

বর্তমান কমিশনে কাজ করতে পেরে নিজেকে ভাগ্যবান উল্লেখ করে মাহবুব তালুকদার বলেন, আমি খুবই ভাগ্যবান ব্যক্তি। কারণ, সরকারি চাকরি করার সময় আমার বঙ্গভবনে ৫ বছর কাজ করার সুযোগ হয়েছে। চার জন রাষ্ট্রপতির সঙ্গে আমার সরাসরি কাজ করার সুযোগ হয়েছিল। আর জীবনের শেষ পর্যায়ে এসে প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ চার জন নির্বাচন কমিশনারের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ হয়েছে, সম্ভবত ৫ বছর ব্যাপী। সেজন্য জীবনের প্রথম পর্যায়ে আমলা হিসেবে ৫ বছর এবং শেষ সময়ের এই ৫ বছর আমার জীবনে গৌরবগাঁথা হয়ে থাকবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com