সোমবার, ১৭ মে ২০২১, ১০:৩৮ পূর্বাহ্ন

দোহারে নারীকে কুপিয়ে জখম আটক-১

খবরের আলো :

 

 

দোহার-নবাবগঞ্জ প্রতিনিধি : দোহার উপজেলায় নিপা আক্তার (২৫) নামে এক নারীকে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। নিপা আক্তার নবাবগঞ্জ উপজেলার কাশিমপুর গ্রামের আ. মান্নানের মেয়ে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার সকালে নিপা আক্তার নবাবগঞ্জ থেকে দোহার উপজেলার মেঘুলা বাজারে চাকুরির খোঁজে আসে। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সে তার বাড়ি নবাবগঞ্জ যাওয়ার সময়ে মেঘুলা বাজারের ন্যাশনাল ব্যাংকের নিচে ঝন্টু (৪০) ও হাসান (৩৫) নামে দুই ব্যক্তি তাকে কুপিয়ে জখম করে। নিপা আক্তারের আত্মচিৎকারে আশেপাশের লোকজন নিপাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে দোহার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। এ দিকে ঘটনার পর ঝন্টু ও হাসান পালিয়ে যাওয়ার সময়ে স্থানীয় বিক্ষোদ্ধ জনতা ঝন্টু নামে একজনকে আটক করে গণধোলাই দিয়ে দোহার থানা পুলিশের নিকট সোপর্দ করে। ঝন্টু মালিকান্দা গ্রামের আবেদ আলীর ছেলে তবে হাসানের পরিচয় এখনো জানা যায়নি।

এ বিষয়ে আহত নিপা আক্তার বলেন, আমি ১ বছর আগে এয়ারটেল ও রবি সীম এজেন্ট হিসেবে কাজ করতাম। চাকুরির তাগিদে প্রায় সময় মেঘুলা বাজারে আসতাম, ওই সময়ে ঝন্টু ও হাসান নামে দু’জন লোক আমায় উত্ত্যাক্ত করতো। কিছু দিন আগে আমার ফোন নম্বর জোগাড় করে ফোনে আমায় বিভিন্ন খারাপ প্রস্তাব ও হুমকি দেয়। বর্তমানে আমার চাকুরি না থাকায় মেঘুলা বাজারের মামুন আব্দুল্লাহ ভাইয়ের কাছে আসি। তার কাছে একটি চাকুরির বিষয়ে কথা বলে বাড়ি যাবার উদ্দেশ্যে আমি মেঘুলা বাজারের ন্যাশনাল ব্যাংকের নিচে দাঁড়ালে হঠাৎ করে ঝন্টু ও হাসান আমাকে চাপাতি দিয়ে ঘাড়ে, মাথায় ও হাতে কুপ দিলে আমি মাটিতে লুটিয়ে পড়লে আশেপাশের সবাই আমায় হাসপাতালে নিয়ে আসে।

এ বিষয়ে দোহার থানার এস আই মো. হামিদুর রহমান জানায়, ঘটনাস্থল থেকে জাহিদ নামে এক জনকে আটক করা হয়েছে। তার বাড়ি মালিকান্দা গ্রামে। এ বিষয়ে আহতের পরিবার থেকে কেউ এখনো থানায় কোনো মামলা বা অভিযোগ করেনি।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com