সোমবার, ১৭ মে ২০২১, ১০:১৭ পূর্বাহ্ন

মামলা প্রত্যাহারের হুমকি , পুলিশের ভ‚মিকা রহস্যজনক দুই মাসে গ্রেফতার হয়নি গৃহবধু রুনা হত্যার কোন আসামি

খবরের আলো :

 

 
হাবিবুর রহমান মাসুদ, পটুয়াখালী প্রতিনিধি : পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের নবীপুর গ্রামের গৃহবধূ খাদিজা আফরিন রুনা হত্যার দুই মাস অকিবাহিত হলেও এখনও গ্রেপ্তার হয়নি কোন আসামি। চার আসামি প্রকাশ্যে ঘোরাফেরা করছে। প্রতিনিয়ত দিচ্ছে মামলা প্রত্যাহারের হুমকি। আসামিদের ভয়ে নিরাপত্তাহীন হয়ে পড়েছেন রুনার বাবাসহ স্বজনরা। এদিকে পুলিশের ভুমিকায় উদ্বিগ্ন রুনার পরিবার। এমনসব অভিযোগ এনে সোমবার বেলা ১১টায় কলাপাড়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন নিহত রুনার ছোট বোন সানজিদা আক্তার রুমা।
লিখিত বক্তবে রুমা জানান, যৌতুকের জন্য তার বোনকে মারধর করা হতো। এনিয়ে সালিশ বৈঠক করা হয়। এক দফা তালাক পর্যন্ত দেয় স্বামী রাকিবুল বেপারী। আবার তালাক বাতিল করে ঘর সংসার করতে থাকে। গেল বছর ২৬ নবেম্বর শারীরিক নির্যাতন শেষে ঘরের একটি কক্ষে আটকে রাখা হয় রুনাকে। তখন হত্যার উদ্দেশে কীটনাশক খাইয়ে দেয়। এরপরে রক্তবমি করতে থাকে রুনা। তাঁদের পরিবারের কাউকে অবহিত না করে রুনাকে বরিশাল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসাধীন থাকাকালে ২৮ নবেম্বর মধ্যরাতে মারা যায় রুনা। এ ঘটনায় পাষন্ড স্বামী রাকিবুলসহ সাতজনকে আসামি করে কলাপাড়া থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন রুনার মা রোকেয়া বেগম।
সানজিদা জানান, বর্তমানে মামলার আসামি সাহিদা বেগম, রাণী বেগম, আ. হক হাওলাদার ও সামসুদ্দিন বেপারী প্রকাশ্যে ঘোরাফেরা করছে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মোজাম্মেল হোসেনের বিরূদ্ধেও কাউকে না ধরার অভিযোগ করেন। এ ঘটনায় নিহত রুনার বাবা মালেক মৃধা পটুয়াখালীর পুলিশ সুপারের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। বর্তমানে নিহত রুনার গোটা পরিবার আছেন চরম নিরাপত্তাহীন।
এবিষয়ে জানতে চাইলে এসআই মোজাম্মেল হোসেন জানান, সকল আসামি পলাতক রয়েছে। তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ ঠিক নয়।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com