শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ০৬:১১ অপরাহ্ন

নিজের ক্রয় করা সম্পত্তিতে বাউন্ডারি র্নিমান করতে গিয়ে বিব্রত পরিস্থিতে পড়েছেন এমপি মুহিব

খবরের আলো :

 

 

হাবিবুর রহমান মাসুদ, পটুয়াখালী প্রতিনিধি : দখল নয়, নিজের ক্রয় করা সম্পত্তিতে বাউন্ডারি র্নিমান করতে গিয়ে বিব্রত পরিস্থিতে পড়েছেন এমপি মুহিব এমন দাবী করে সংবাদ সম্মেলণ করেছে কুয়াকাটা পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগ। রবিবার বেলা দশটায় কুয়াকাটা প্রেসক্লাবে এক সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে কুয়াকাটা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি শহীদ দেওয়ান বলেন, ৯৭ সালে ক্রয় করা জমিতে দীর্ঘদিন ধরে কোন স্থাপনা র্নিমান না করায় একশ্রেণীর ভাসমান ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান করে ব্যবসা করে আসছিল। অপরদিকে পানি উন্নয়নের বোর্ড তাদের মালিকানাধীণ ৪৮ শতাংশ জমিতে ধাঁনসিড়ি নামে একটি গেস্ট হাউস র্নিমান করেছে। বাউন্ডারি ওয়াল র্নিমানে করে তাদের জমি দখলে রয়েছে। কাজেই পটুয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য পাউবো’র কোন জমি দখল করেননি। একটি প্রতিক্রিয়াশীল চক্র পরিকল্পিতভাবে তাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য গনমাধ্যমকর্মীদের ভ’ল তথ্য দিয়ে সংবাদ পরিবেশ করিয়েছে।
লিখিত বক্তব্যে শহীদ দেওয়ান আরো বলেন, সেউ মগের কন্যা সেফরী মগ ৩৪ নং জেএল লতাচাপলী মৌজার ১৯৪১ সনের আরএস খতিয়ানমুলে মালিক। যার দাগ নং ৫৩৪৮, ৫৩৪৯, ৫৪৮৫, ৫৩৬৩, ৫৩৫০, ৫৪৮৪, ৫৪৮৬। ১০৫৯ সনের এসএ ১১৬০ খতিয়ানমুলেও উক্ত ১ একর ৮ শতাংশ জমির মালিক থাকেন সেফরী মগ। সেফরী মগের লোকান্তরে ওয়ারিশ প্লিচিং মগনী কাছ থেকে ১৯৯৭ সানে ৩০৫০ নং সাফ কবলা দলিল মুলে দুই একর জমি ক্রয় করেন মহিব্বুর রহমান গং। এরমধ্যে ৮০ শতাংশ জমি মহিব্বুর রহমানের নিজ নামীয়। যা পরবর্তীতে বিএস ১২৫৮ খতিয়ান হিসাবে অর্ন্তভ’ক্ত হয়।
তিনি আরো বলেন, একই আরএস ও এসএ দাগ হতে ১৯৬৮ সনে পানি উন্নয়ন বোর্ড ৩৮ শতাংশ জমি সরকারের কাছ থেকে অধিগ্রহন করে। কিন্তু উক্ত দাগের জমি ১৯৪১ সনে ব্যাক্তি মালিকানায় রেকর্ড হয়। একইভাবে ১৯৫৯ সালেও এসএ রেকর্ড হয়। যার খতিয়ান নং ১১৬০। প্রকৃতপক্ষে উলে।রখিত দাগে সরকারের আদৌ কোন জমি ছিলনা। আর পানি উন্নয়ন বোর্ড বিএস ৩৩৯৮,৩৩৯৯ দাগের ৪৮ শতাংশ জমি তাদের দখলে রয়েছে। কাজেই এমপি মহোদয় কতৃক পানি উন্নয়ন বোর্ডের জমি দখল করা শুধু গল্প নয় মিথ্যা প্রপাগন্ডা। তাকে সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য এসব মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে।
এসময় উপস্থিত দোকান মালিক শাহজাহান বিশ্বাস বলেন, তিনি কোন সাংবাদিকের কাছে বলেননি তাকে জোর করে উচ্ছেদ করে দেয়া হয়েছে। তিনি নিজেই তার দোকান ঘর সরিয়ে নিয়ে গেছেন।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে পানি উন্নয়ন বোর্ড কলাপাড়া সার্কেলের নির্বাহী প্রকৌশলী শাহজাহান সিরাজ দেশ রূপান্তরকে বলেন, উল্লেখিত দাগ এবং খতিয়ানের তার (এমপি মুহিব) কোন জমি নাই।
এসময় মহিপুর যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক মাসুদ রানা, লুৎফুল হাসান রানা, কালাম ফরাজী, জামাল হাওলাদার শাকিল মৃধাসহ স্থানীয় আ.লীগ, যুবলীগসহ অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য ৮ ফেব্রæয়ারী দৈনিক যুগান্তর প্রত্রিকায় ”পাউবোর জমি দখলে এমপি মুহিব” শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। সেখানে বলা হয়েছে, এমপি হওয়ার ১ মাসের মাথায় কুয়াকাটায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের কোটি কোটি টাকার সম্পত্তি দখল করে নিচ্ছেন পটুয়াখালী-৪ আসনের এমপি মুহিব্বুর রহমান মুহিব।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com