বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১, ০৪:১৩ অপরাহ্ন

আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী প্রার্থী মহিউদ্দিন এর নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষনা

খবরের আলো :

 

 

হাবিবুর রহমান মাসুদ, পটুয়াখালী প্রতিনিধি :পটুয়াখালী পৌরসভার সমৃদ্ধির অগ্রযাত্রায়
“সমৃদ্ধির অগ্রযাত্রায় পটুয়াখালী পৌরসভার ” শিরোনামে আগামী দিনের কর্ম-পরিকল্পনা তুলে ধরে নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষনা করেছেন পটুয়াখালী পৌরসভার আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী প্রার্থী মহিউদ্দিন আহম্মেদ। মঙ্গলবার বেলা বারোটায় পটুয়াখালীর পুলিশ সুপার মার্কেটস্থ মল্লিকা রেঁস্তেরার হলরুমে গনমাধ্যমকর্মীদের সামনে তিনি এ ইশতেহার উপস্থাপন করেন।
ইশতেহারে সর্বাধিক গুরুত্বের খাত: উন্নয়ন পরিকল্পনা ও অঙ্গীকার হিসাবে ২০টি বিষয়ের উপর গুরুত্বারোপ করা হেেয়ছে। খাত গুলি হল (১) পটুয়াখালী পৌরসভায় মেয়রকে নাপাওয়ার অভিযোগ দুর করে জনগনের সেবক হয়ে দুর্নীতিমুক্ত নাগরিকসেবা প্রদান করা। (২) প্রযুক্তিনির্ভর নাগরিকসেবা চালুর মাধ্যমে জবাবদিহিতামূলক স্বচ্ছ ও গতিশীল প্রশাসনিক কার্যাবলী পরিচালনা করাহবে। ঘরে বসেই সবাই যেকোন সনদ, রেজিস্ট্রেশন, বিভিন্ন প্রকার সেবা/ ফিস, পৌরকর জমাদিতে পারবেন পৌর এলাকায় অবস্তিত উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ সিঙ্গারা পয়েন্ট ও তরুনদের বিভিন্ন মিলন স্থলে ফ্রি ওয়াই ফাই জোন করা। (৩) নাগরিকদের চলাচলে নিরাপত্তা ব্যাবস্থা জোরদারকরার জন্য শহরের গুরুত্বপূর্ন সড়ক সমূহকে সি সি ক্যামেরার আওতায় আনা। (৪) পরিকল্পিত পয়নিস্কাশন ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে পরিচ্ছন্ন শহর গড়ে তুলতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে। (৫) তরুণ সমাজকে মাদকের মরন ছোবল থেকে বাচাঁতে খেলাধুলাসহ বিভিন্ন প্রকার বিনোদন কার্যক্রম ও জনকল্যাণকর স্বেচ্ছাসেবী কাজে তরুণদের উৎসাহিত করাহবে। (৬) প্রশাসনের সাথে সার্বিক সহযোগিতার মাধ্যমে পৌর এলাকাকে মাদক মুক্ত করতে শক্ত অবস্থান গ্রহন হরাহবে। (৭) পৌর কর্মচারীদের সকল বকেয়া বেতন ধ্রæত ব্যবস্থা গ্রহন করা। (৮) নতুন নলকুপ স্থাপন ও পানি সরবরাহ নেই এমন এলাকায় নতুন লাইন বসিয়ে নিরিবিচ্ছিন্ন পানি সরবরাহ ব্যবস্থা নিশ্চত করা হবে। (৯) শহরের প্রধান প্রধান সড়কে সাথে এলাকা ভিত্তিক ছোট ছোট রাস্তা সমূহকে গুরুত্ব দিয়ে সমান্তরাল গতিতে এলাকার জনগণের চাহিদার ভিত্তিতে উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালনা করাহবে। (১০) শহরের প্রধান প্রধান সড়কের সাথে এলাকাভিত্তিক ছোট ছোট রাস্তাসমূহকে গুরুত্ব দিয়ে সমন্তরাল গতিতে এলাকার জনগণের চাহিদার ভিত্তিতে উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে।
(১১) পৌরসভার একটি ডিজিটাল তথ্য সেবা কেন্দ্র খোলা হবে। এখান থেকে ২৪ঘন্টা নাগরিকসেবা, কৃষি শিক্ষা, ব্যবসা,চিকিৎসা,বিদেশ গমন, আইনি সহায়তা,দুর্যোগ ব্যবস্থাপনাসহ সব ধরনের তথ্য সেবা পাওয়া যাবে।
(১২) সুদূর ভবিষ্যতের কথা বিবেচনায় রেখে অভিজ্ঞ পরিকল্পনাকারীদের নিয়ে সরকারের রূপকল্প ও ডেলটা প্লানের সাথে সামঞ্জস্য রেখে পৌর এলাকা দিয়ে নতুন আঙ্গিকে ডিটেল মাস্টার প্লান প্রণয়ন ও তদানুযায়ী কার্যকর বাস্তবায়ন করা হবে। (১৩) পুরাতন জেলখানার বধ্যভূমি উন্মুক্ত করে একটি শহীদ স্মৃতিস্তম্ভ এবং গোটা এলাকায় নাগরিক সৌন্দয্যায়ন করার জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। (১৪) শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানসমূহে আধুনিক ও উন্নত পাবলিক টয়লেট নির্মাণ করা হবে। (১৫) পৌর নাগরিকদের স্বাস্থ্য সেবার জরুরী প্রয়োজন বিবেচনায় নিয়ে পৌরসভার উদ্যোগে দু’টি অত্যাধুনিক মানের নতুন এ্যাম্বলেন্সের ব্যবস্থা করা হবে এবং স্বেচ্ছায় রক্তদান,অঙ্গ বা দেহদানের জন্য স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনও স্বাস্থ্য সচেনতা নিয়ে ক্রিয়াশীল সংগঠনসমূহকে পৃষ্ঠপোষকতা দেয়া হবে। (১৬) গরীব ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের প্রতি বছর পৌর বৃত্তি ও পুরস্কার প্রদান করা হবে। (১৭) পৌর এলাকায় একটি আধুনিক সিনিয়র সিটিজেন ক্লাব গড়ে তোলা হবে এবং সেখানে পৌর এলাকার সিনিয়র নাগরিকেরা বিনোদনের মাধ্যমে ভালভাবে সময় কাটাতে পারবেন।
(১৮) শহরের সার্কিট হাউস এলাকাকে নতুন করে সৌন্দয্যায়ন করে এই স্থানকে ঘিরে সুন্দর একটি ওয়াক ওয়ে নির্মাণ করা হবে,যেন আবাল বৃদ্ধ বনিতা এখানে এসে পরিবারের সাথে বিনোদনপূর্ণ সময় কাটাতে পারে।
(১৯) পৌর এলাকায় অবস্থিত কার্যকর সকল সাংস্কৃতিক ও ক্রীয়া সংগঠনসমূহকে পৌরসভা কর্তৃক পৃষ্ঠপোষকতা দেয়া হবে। বৃহৎ পরিসরে শহরে একটি মুক্তমঞ্চসহ পৌর সাংস্কৃতিক কেন্দ্র তৈরী করা হবে। পৌরসভা কর্তৃক প্রতি বছর নিয়মিতভাবে স্কুল ও কলেজকেন্দ্রিক সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ও পৌরকাপ ক্রীড়া প্রতিযোগিতা আয়োজন করা হবে। ২০) আমি কথা দিচ্ছি পৌরবাসীর আকুন্ঠ সমর্থন পেলে মাদক কারবারী সে যত বড় শক্তিশালী হোক না কেন এ শহরকে সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত করার জন্য দৃঢ় পদক্ষেপ গ্রহণ করবো এবং জয়ী হবো ইনশাল্লাহ্। জনকল্যাণকর স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সাংস্কৃতিক কাজে তরুণদের যথাযথভাবে উৎসাহিত করা হলে মাদকের এই কালো থাবা থেকে আগামী প্রজন্মকে রক্ষা করা সম্ভব।
প্রাণপ্রিয় পৌরবাসী,
উন্নয়নের অভিযাত্রায় সামিল হতে একটি আধুনিক মডেল পৌরসভা বিনির্মাণের স্বপ্ন বাস্তবায়নে আগামী ২৮ ফেব্রæয়ারী, ২০১৯ পটুয়াখালী পৌরসভ্া নির্বাচনে মেয়র পদে ‘জগ’ মার্কায় ভোট দিয়ে আমাকে আপনাদের সেবক হওয়ার সুযোগ দিন। আমি কথা দিচ্ছি আগামী দিনে ‘ নতুন পটুয়াখালী পৌরসভা’ গড়ে তুলতে আমি আমার সর্বশক্তি ও সামর্থ্য দিয়ে পৌরবাসীর মুখে হাসি ফুঁটাবো ইনশাল্লাহ্।
পটুয়াখালী পৌরসভায় এই ২০টি নির্বাচনী অংগীকার তুলে ধরেন এবং পুরোপুরি বাস্তবায়নের অংগীকার করেন । ইশতাহের শেষে গণমাধ্যম কর্মীদের বিভিন্ন প্রশ্নেরও উত্তর দেন মহিউদ্দিন আহমেদ।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন পটুয়াখালী চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সহ-সভাপতি সাবেক পৌর কাউন্সিলর খন্দকার ফরহাদুজ্জামান বাদল, বিশিস্ট ব্যবসায়ী এড. হাফিজুর রহমান হাফিজ, সহকারী অধ্যাপক মো. হারন- অর-রশীদ, বিশিস্ট ব্যবসায়ী কামরুজ্জামান, প্রভাতি প্রি-ক্যাডেট স্কুলের পরিচালক মোঃ রাশেদুর রহমান রাহাত প্রমুখ সহ অসংখ্য সমর্থক ও কর্মী বৃন্দ।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com