শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৩:৪২ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :

কুয়েত মৈত্রী হলে বস্তাভর্তি ব্যালট, প্রভোস্ট বরখাস্ত

খবরের আলো রিপোর্ট :

 

 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হল থেকে সিল মারা ব্যালট পেপার উদ্ধার হওয়ার পর বরখাস্ত করা হয়েছে হল প্রভোস্ট শবনম জাহানকে। সোমবার দশটার দিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর গোলাম রব্বানী। এই হলে নতুন প্রভোস্টের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে অধ্যাপক মাহবুবা নাসরিকে।

এদিকে দেশের দ্বিতীয় সংসদ নামে খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে সোমবার সকাল ৮টা থেকে। কিন্তু ভোট শুরুর পরপরই ব্যালেট বাক্স ভর্তি করে রাখার অভিযোগ উঠেছে। এ অভিযোগ উঠেছে বাংলাদেশ কুয়েত মৈত্রী হলের ভোটকেন্দ্র থেকে।

সোমবার সকাল ৯টায় বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হলের সামনে দেখা যায়, আগে থেকে সিল মারা ব্যালট পেপার নিয়ে শিক্ষার্থীরা হলের গেটের সামনে বিক্ষোভ করছেন। এসব সিল মারা ব্যালট পেপার পৌঁছে গেছে শিক্ষার্থীসহ সাংবাদিকদের কাছেও।

বিক্ষোভরত শিক্ষার্থীরা ‘ভোট চুরির জবাব চাই’ স্লোগান তুলছেন। হলের গেট দিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তা অধ্যাপক ড. মো. সামাদ গাড়ি নিয়ে বের হওয়ার চেষ্টা করলেও আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা তাকে আটকে দেন। ড. সামাদ গাড়ি থেকে নেমে শিক্ষার্থীদের বোঝানোর চেষ্টা করছেন। কিন্তু দাবি নিয়েই শক্ত অবস্থানে শিক্ষার্থীরা।

তারা জানান, সকাল ৮টায় ভোটাররা ভোট দিতে লাইনে দাঁড়ান। প্রক্টর গিয়ে সেখানে কথা বলে সময় কাটানোর চেষ্টা করেন। পরে শিক্ষার্থীরা জোর করে ঢুকলে সিল মারা ব্যালট উদ্ধার করা হয়।

শিক্ষার্থীরা বলছেন, এসব ব্যালট পেপারে ছাত্রলীগের প্রার্থীদের সিল মারা ছিল। সেজন্য তারা এখন ছাত্রলীগের প্যানেল বাদ দিয়ে নির্বাচন করার দাবি করছেন।

শিক্ষার্থীরা আরও বলছেন, আগের রাতেই সিল মারা হয়ে গেছে। এ নির্বাচন আমরা বয়কট করেছি। আমাদের তত্ত্বাবধানে সুষ্ঠু ভোট না হলে এখানে আর ভোট হবে না। আমরা ভোট কারচুপির জবাব চাই। তাছাড়া আমাদের হল প্রভোস্ট, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ফোন দিয়ে সরে যাওয়ার জন্য বলছেন। আমরা তাদেরও পদত্যাগ চাই। আমাদের এসব দাবি মেনে নেওয়া না হলে আমরা অবস্থান ত্যাগ করবো না।

পরে মৈত্রী হলের প্রধান নির্বাচন কর্মকর্তা অধ্যাপ ড. এসএম মাহফুজুর রহমান ভর্তি ব্যালট পেপার পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘বিষয়টি আমরা পর্যবেক্ষণ করছি। আপাতত ভোট স্থগিত রাখা হয়েছে।’

এই হলে ভোট গ্রহণ শুরু না হওয়ার বিষয়ে প্রক্টর অধ্যাপক গোলাম রব্বানী সাংবাদিকদের বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। যার ফলে বাংলাদেশ কুয়েত মৈত্রী হলের ভোট স্থগিত করা হয়েছে।’

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com