মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২১, ০১:১৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
অন্ন বস্ত্রের সমাধানের পর গৃহহীনদের মাথা গোঁজার ঠাঁই করে দিচ্ছেন বঙ্গবন্ধু কন্যা -তথ্যমন্ত্রী   বিত্ত কখনো রাজনীতি নিয়ন্ত্রণ করতে পারেনা -তথ্যমন্ত্রী বাইডেনের শপথের সব আয়োজন সম্পন্ন, নজিরবিহীন নিরাপত্তা শিগগিরই ভ্যাকসিন বিতরণ কার্যক্রম শুরু : সংসদে প্রধানমন্ত্রী সিরাজগঞ্জে অবৈধ ৩টি ইটভাটায়  ভ্রাম্যমান আদালতে ১১ লক্ষ টাকা জরিমানা নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মকর্তা পরিষদের নির্বাচন ১৪ জানুয়ারি বেলকুচিতে আলোচিত পিতা-পুত্র হত্যা মামলার অন্যতম আসামী আটক স্পেনে তীব্র তুষারপাতে জনজীবন অচল: যান চলাচল বন্ধ সিরাজগঞ্জ সরকারি কলেজের শিক্ষিকা শিউলী মল্লিকা গ্রেফতার দোহারে অবৈধ ড্রেজার পাইপ ভেঙ্গে দিল প্রশাসন 

সব কিছু নিয়ে রাজনীতি করা বিএনপির স্বভাব: নাসিম

খবরের আলো রিপোটঃ

 

 

সব কিছু নিয়ে রাজনীতি না করতে বিএনপি নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এবং কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম। তিনি বলেন, ‘সব কিছু নিয়ে রাজনীতি করা বিএনপি নেতাদের একটা স্বভাবে পরিণত হয়েছে। বাংলাদেশে যেকোনো ঘটনার জন্য সরকারকে দায়ী করা যেন একটা ফ্যাশনে পরিণত হয়েছে। একজন দুর্নীতিবাজকে গ্রেফতার করলেও আপনারা তার পক্ষ নিয়ে রাজনীতি শুরু করবেন এটা মানা যায় না। দুর্নীতিবাজদের রাজনীতিতে সাপোর্ট করার কারণ বিএনপির রাজনীতি ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে।’

সোমবার বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ১৪ দলের বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘সব কিছু নিয়ে অভিযোগ করা বিএনপির একটা অভ্যাস হয়ে দাঁড়িয়েছে। যে কারণে আজ তাদের দলের এই করুন অবস্থা। এফ আর টাওয়ারের মালিককে গ্রেফতার করার সাথে সাথে বিএনপি থেকে বলা হল, রাজনৈতিক কারণে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আমি বলি, বিএনপি নেতারা কি অপরাধ করতে পারে না? তিনি ওই ভবনের মালিক। বিএনপি সব কিছু নিয়ে রাজনীতি করতে চায়, তাই তাদের এই করুন অবস্থা হয়েছে।’

তিনি বলেন, আপনারা সব কিছু নিয়ে রাজনীতি করবেন না। এফ আর টাওয়ারের মালিক ১৮তলার পারমিশন নিয়ে ২২ তলা বিল্ডিং করেছে। এই অপরাধে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। একজন দুর্নীতিবাজকে গ্রেফতার করলেই আপনারা তার পক্ষ নিয়ে রাজনীতি শুরু করেন কেন?

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বিএনপি ভুলের রাজনীতিতে ঘুরপাক খাচ্ছে। ভুলের রাজনীতি করতে গিয়ে তারা হতাশায় ভুগছে। এ জন্য যে কোন সময় তারা ষড়যন্ত্রের রাজনীতি শুরু করতে পারে। তাদের এ ধরনের রাজনীতি সম্পর্কে সকলকে সজাগ থাকাতে হবে।

বিএনপির নির্বাচিত সংসদ সদস্যদের সংসদে আসার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আগামী ৩০ এপ্রিলের মধ্যে সংসদে না আসলে বিএনপি শেষ সুযোগটাও হারাবে। ইস্যুবিহীন ইস্যু নিয়ে ষড়যন্ত্র না করে সংসদে এসে কথা বলুন। প্রয়োজনে আপনাদের দলীয় প্রধানের মুক্তির দাবি করুন।

এ দিকে সমাজে নৈরাজ্য, মাদক, নারী-শিশু নির্যাতনসহ সকল অনিয়মের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের পক্ষ থেকে কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

কর্মসূচির মধ্য রয়েছে- আগামী ১০ এপ্রিল মতিঝিলে এবং ১১ এপ্রিল ধানমন্ডিতে অভিভাবক সমাবেশ। ১৫ ও ১৬ এপ্রিল রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। এই বৈঠকে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দসহ দেশের বুদ্ধিজীবী, সাংবাদিক ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা অংশ গ্রহণ করবেন। এছাড়াও মুজিব নগর দিবস উপলক্ষে আগামী ১৯ এপ্রিল রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এক সমাবেশের আয়োজন করা হবে।

এর আগে মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পাটির্র সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা এমপি, গণআজাদী লীগের সভাপতি এসকে শিকদার, জাতীয় পার্টি জেপির সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এজাজ আহমেদ মুক্তা, আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ এমপি, উপদপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের আহবায়ক ড. আসীত বরণ রায় প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com