শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ০৯:৫৬ পূর্বাহ্ন

মানুষ কোনো পোষাকধারী সন্ত্রাসী দেখতে চায় না- শামীম ওসমান

খবরের আলো :

 

 

স্টাফ রিপোর্টার নারায়ণগঞ্জ : কেউ যদি জাতির জনকের কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার শক্ত ঘাটি এই নারায়ণগঞ্জকে মনে করে এই কাউন্সিলরকে ফাঁসাবো, এই চেয়ারম্যানকে ঢুকাবো, চাঁদাবাজি শুরু করবো, ব্যবসায়ীদেরকে ফোন করবো, শ্রমিক নামধারীরা আইসা মেইল-গার্মেন্টেসে ভয় দেখাবে, বাস শ্রমিকদের কাছে থেকে চাঁদা তুলবেন এটা হবেনা।আমাদের মধ্যে যদি কেউ খারাপ হয় তাকে আমরা ছার দেবো না। আমাদের মধ্যে কাউকে যদি ইচ্ছে করে ঝামেলায় ফেলা হয় নারায়ণগঞ্জের মাটিকে ২৪ ঘন্টার মধ্যে চাড়া নাচিয়ে দিবো। এক সেকেন্ড ছাড় দেয়া হবে না। একটা সেকেন্ডও কোনো নেতাকর্মীকে ঝামেলায় ফালানো হবে না, একটা সেকেন্ডও কোনো ব্যবসায়ীকে মাথা নত করে ব্যবসা করবে না, কোনো সাংবাদিক ভয় পেয়ে সাংবাদিকতা করবেনা। কারণ এই দেশ শেখ হাসিনার, এই নারায়ণগঞ্জও শেখ হাসিনার। তারপরেও যদি কোনো খেলা করার চেষ্টা করা হয় আমরা নেতৃবৃন্দরা বসে যে কর্মসূচী দেবো আপনারা সে কর্মসূচী পালন করবেন। কারণ আমরা কারো বিরুদ্ধে কিছু করতে আসি নাই। আমরা মানুষকে শান্তি দিতে চাই। মানুষ পদ্মা সেতু চায় কিন্তু তার থেকেও মানুষ শান্তিতে থাকতে চায়। মানুষ কোনো সন্ত্রাসী দেখতে চায় না, পোষাকধারী সন্ত্রাসীও দেখতে চায় না।
শনিবার (৬ এপ্রিল) বিকেল ৪টায় ইসদাইরে অবস্থিত বাংলা ভবন কমিউমিটি সেন্টারে জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ কতৃক আয়োজিত এক জরুরী কর্মীসভায় নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ একেএম শামীম ওসমান একথা বলেন।

আশা করি এই নারায়ণগঞ্জকে আমরা স্বপ্নের নারায়ণগঞ্জ বানাবো। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যে স্বপ্ন দেখেছিলেন সে স্বপ্নের নারায়নগঞ্জ হবে। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়নের নারায়ণগঞ্জ হবে। শুধু মাত্র একটা অনুরোধ থাকবে সবার কাছে, এরপরেও যদি খেলা হয় ২৪ঘন্টা না ৬ঘন্টার নোটিশ দেবো। সবাই প্রস্তুত থাকবেন। তবে খেলা হবে না ইনশাল্লাহ। খেলা খেলার আগেই শেষ হয়ে যাবে । আমি বারবার বলছি বাইরের মানুষকে দোষ দিয়েননা, ঘরের ভিতরের মোস্তাকদের দোষ দেন। যারা নারায়ণগঞ্জকে অশান্ত করার চেষ্টা করে তাদের দোষ দেন। তাদের দোষ দেন যারা সজলের মত ত্যাগী নেতা,নিজামের মত নেতা, মিরুর মত পঙ্গু নেতা, যারা ছাত্রলীগ যুবলীগের নেতাদের ট্রেস করার চেষ্টা করছে কিংবা ষড়যন্ত্র করার চেষ্টা করছে এরা বাইরের কেউ না এরা ভিতরের লোক। ওরা আওয়ামীলীগকে নিঃশেষ করতে চায়। তাই উত্তেজিত হবেন না ,কাউকে কোনো সুযোগ দিবেন না। আমাদের নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ভাবমূর্তি রক্ষা করার দায়িত্ব আমাদেরই। কারণ আমাদের অহংকার , আমাদের গর্ব, আমাদের পরিচয় সবকিছু হচ্ছে জননেত্রী শেখ হাসিনা।
উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত মোঃ শহীদ বাদল, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা, সভায় সোনারগাঁ থানা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এড. সামসুল ইসলাম ভূইয়ার সভাপতিত্বে সহ সভাপতি চন্দন শীল, ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম সাইফুল্লাহ বাদল, সাধারণ সম্পাদক শওকত আলী, বন্দর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ রশিদ, মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, মহানগর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাত হোসেন সাজনু, জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর সোহেল, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা যুবলীগের সভাপতি মতিউর রহমান মতি,ফতুল্লা থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ফরিদ আহম্মেদ লিটন, ফতুল্লা থানা আওয়ামী মুক্তিযুদ্ধ লীগের সভাপতি হাজী মো: রহমতউল্লাহ, আলাউদ্দিন হাওরাদার,জেলা পরিষদ এর সদ¯্র মোস্তফা চৌধুরী, সাবেক জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম চেঙ্গিস, সাবেক জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এহসানুল হাসান নিপু, সাফায়েত আলম সানি, মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান রিয়াদ, সাধারণ সম্পাদক হাসনাত রহমান বিন্দু, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসমাঈল রাফেল নাসিক ১১নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ নেতা জসীমউদ্দিন,জাহাঙ্গীর আসলাম, সেলিনা,আলিমউদ্দিন, আলী প্রমুখ।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com