বুধবার, ১৩ জানুয়ারী ২০২১, ০১:৫২ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বেলকুচিতে আলোচিত পিতা-পুত্র হত্যা মামলার অন্যতম আসামী আটক স্পেনে তীব্র তুষারপাতে জনজীবন অচল: যান চলাচল বন্ধ সিরাজগঞ্জ সরকারি কলেজের শিক্ষিকা শিউলী মল্লিকা গ্রেফতার দোহারে অবৈধ ড্রেজার পাইপ ভেঙ্গে দিল প্রশাসন  সালমান এফ রহমানের দোহার – নবাবগঞ্জে উন্মুক্ত হলো ওয়াজ মাহফিল বদলগাছীর কোলা ইউনিয়ন কে মডেল ইউনিয়ন গড়ার প্রত্যয়ে কাজ করছেন চেয়ারম্যান স্বপন নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালন রাজধানীর মিরপুরে নতুন বছর উদযাপনের বিশেষ আয়োজন এবার ঠাকুরগাঁওয়ে ইট দিয়ে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল ভাঙচুর নির্বাচন আসলে অভিযোগের বাক্স খুলে বসা বিএনপির অভ্যাসগত স্বভাব : তথ্যমন্ত্রী

শপথ নেওয়ার জন্য কোনো আবেদন করিনি: ফখরুল

খবরের আলো রিপোটঃ

 

 

একাদশ সংসদ নির্বাচনে সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেওয়ার জন্য কোন আবেদন করেননি বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, দলের সিদ্ধান্তে শপথ নেইনি, কোনো চিঠিও দেইনি। মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক প্রতিবাদ সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেছেন, কয়টি চ্যানেল থেকে খুব জোড়ালভাবে বলা হচ্ছে আমি ব্যক্তিগতভাবে শপথ নেওয়ার জন্য সময় চেয়েছি, আবেদন করেছি। এটা একদম সিম্পল আমি কোনো চিঠি দেয়নি কোন সময় চাইনি। শপথের ব্যপারে কোনো চিঠি দেইনি। অনেকে বলতে পারেন, আপনার দলের সিদ্ধান্ত হলে আপনি শপথ নেননি কেন? আমি বলবো এটা ও দলের সিদ্ধান্ত। এটা আমাদের কৌশল। সেই কৌশলে আমি শপথ নেয়নি।

বিএনপির মহাসচিব বলেন, একটি কথা আমরা বিশ্বাস করি, কোন সিদ্ধান্তই যে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত থাকবে এটা সবসময় সঠিক নয়। আমরা পরিস্কার ভাবে বলেছি, আমাদের ন্যূনতম যে সুযোগটুকু আছে সংসদে গিয়ে বলার, সেটা কাজে লাগাবো।

তিনি বলেন, যারা চিন্তা করছেন যে সিদ্ধান্তটা আমাদের জন্য খুব খারাপ সিদ্ধান্ত। কিন্তু আমরা মনে করছি না। আমাদের এটার পেছনে সব চেয়ে বড় যুক্তি যেটা সেটা হচ্ছে, সামান্যতম যে সুযোগটুকু রয়েছে, যে স্পেস হয়েছে সেইটুকু ব্যবহার করা। একটা কথা আমাদের মনে রাখতে হবে যেকোন কিছুই সময়ের প্রয়োজনে পরিবর্তন হয়। আমাদের গণতন্ত্র চর্চার যে জায়গাটুকু, প্রতিবাদ করার যে জায়গাটুকু তা একেবারেই সংকীর্ণ হয়ে আসছে। তাই, আমরা সেই জায়গা থেকে ন্যূনতম কথা বলার সুযোগ পেয়েছি।

ফখরুল বলেন, সময় প্রমাণ করবে এটা সঠিক সিদ্ধান্ত হল কিনা। কিন্তু আমরা বিশ্বাস করি এই সিদ্ধান্তটা সঠিক সিদ্ধান্ত। বাস্তবতার প্রেক্ষিতে আমরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

বিএনপির মুখপাত্র বলেন, গতকাল থেকে রাজনৈতিক খুব গরম হয়ে উঠেছে। কারণ, বিএনপির নির্বাচিত সংসদ সদস্যরা শপথ নিয়েছেন। বলা যেতে পারে এটা নিঃসন্দেহে একটা চমক। ইউটার্ন একটা। আমাদের দলীয় সিদ্ধান্ত ছিল ৩০ তারিখের যে নির্বাচন হয়েছে সেটা কোনো নির্বাচন হয়নি। যে নির্বাচনের ভোট ২৯ তারিখের রাতে চুরি হয়ে গেছে জনগণের সঙ্গে প্রতারণা করে। জনগণের ভোটের অধিকার ছিনিয়ে নিয়ে নির্বাচন হয়েছে। তখন জনগণের যে ক্ষোভ ছিল, সেই ক্ষোভের ধারাবাহিকতায় আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম শপথ গ্রহণ করবো না।

তিনি আরো বলেন, বেগম খালেদা জিয়া যদি সমঝোতা করতেন তাহলে তিনি প্রধানমন্ত্রী থাকতেন অনেক আগে থেকে। এই কথাগুলো আপনাদের মনে রাখতে হবে। আপনাদের মনে রাখতে হবে বেগম খালেদা জিয়া সেই ব্যক্তি যিনি তাঁর নীতির প্রশ্নে কখনো আপোষ করেননি ‌। বেগম খালেদা জিয়ার সুনানিতে কে সামনে রেখে আমরা এগিয়ে যাব।

বিএনপির পক্ষ থেকে এ পর্যন্ত পাঁচজন শপথ নেন। তারা হলেন, বগুড়া-৪ আসনের মোশাররফ হোসেন, বগুড়া-৬ আসনের মির্জা ফখরুল, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের আমিনুল ইসলাম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের হারুনুর রশীদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের উকিল আবদুস সাত্তার এবং ঠাকুরগাঁও-৩ আসনে জয়ী জাহিদুর রহমান জাহিদ।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com