মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২১, ০৫:৪৪ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
সিরাজগঞ্জে অবৈধ ৩টি ইটভাটায়  ভ্রাম্যমান আদালতে ১১ লক্ষ টাকা জরিমানা নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মকর্তা পরিষদের নির্বাচন ১৪ জানুয়ারি বেলকুচিতে আলোচিত পিতা-পুত্র হত্যা মামলার অন্যতম আসামী আটক স্পেনে তীব্র তুষারপাতে জনজীবন অচল: যান চলাচল বন্ধ সিরাজগঞ্জ সরকারি কলেজের শিক্ষিকা শিউলী মল্লিকা গ্রেফতার দোহারে অবৈধ ড্রেজার পাইপ ভেঙ্গে দিল প্রশাসন  সালমান এফ রহমানের দোহার – নবাবগঞ্জে উন্মুক্ত হলো ওয়াজ মাহফিল বদলগাছীর কোলা ইউনিয়ন কে মডেল ইউনিয়ন গড়ার প্রত্যয়ে কাজ করছেন চেয়ারম্যান স্বপন নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালন রাজধানীর মিরপুরে নতুন বছর উদযাপনের বিশেষ আয়োজন

ফখরুলের আসনে সংবিধান অনুযায়ী ব্যবস্থা: স্পিকার

খবরের আলো রিপোটঃ

 

 

সময় চেয়ে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর কোনো চিঠি না দিলে সংবিধান অনুযায়ী ওই আসনের বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

মঙ্গলবার বিকালে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, সোমবার পর্যন্ত তার হাতে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের কোনো চিঠি পৌঁছায়নি। যদি এ দিনের মধ্যে চিঠি সংসদ সচিবালয়ে পৌঁছে থাকে, তা গ্রহণ করা হবে। আর সময় চেয়ে তিনি কোনো চিঠি না দিলে সংবিধান অনুযায়ী ওই আসনের বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

৩০ ডিসেম্বর অনুষ্টিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি বগুড়া-৬ আসন থেকে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে জয়ী হন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এই নির্বাচনে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ বিএনপির মোট ছয়জন প্রার্থী জয়ী হন। এদের মধ্যে চারজন সোমবার শপথ নেন।

সংসদের বাইরেই রয়ে যান মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। শপথ নেয়ার জন্য সময় বাড়াতে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর কাছে কোনো আবেদনও করেননি তিনি।

এ বিষয়ে মির্জা ফখরুল ইসলম নিজেই বিষয়টি গণমাধ্যমকর্মীদের অবহিত করে বলেছেন, দলীয় সিদ্ধান্তেই তিনি সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেননি। একইসঙ্গে শপথ নেয়ার জন্য সময় চেয়ে স্পিকারের কাছে কোনো আবেদনও করেননি বলে জানান মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, ‘সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিতে আমি নাকি সময় চেয়ে আবেদন করেছি। আসলে আমি কোনো চিঠি দেইনি। সময়ও চাইনি। এটাও আমাদের দলীয় সিদ্ধান্ত। এটা আমাদের কৌশল। আর এই কৌশলের অংশ হিসেবে বিএনপির সদস্যরা শপথ নিয়েছে। আমি নেইনি’।

সংবিধানের ৬৭ (১) অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘কোন সংসদ-সদস্যের আসন শূন্য হইবে, যদি (ক) তাহার নির্বাচনের পর সংসদের প্রথম বৈঠকের তারিখ হইতে ৯০ দিনের মধ্যে তিনি তৃতীয় তফসিলে নির্ধারিত শপথ গ্রহণ বা ঘোষণা করিতে ও শপথপত্রে বা ঘোষণাপত্রে স্বাক্ষরদান করিতে অসমর্থ হন: তবে শর্ত থাকে যে, অনুরূপ মেয়াদ অতিবাহিত হইবার পূর্বে স্পীকার যথার্থ কারণে তাহা বর্ধিত করিতে পারিবেন’।

এর আগে দলীয় সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে গণফোরামের দুই সংসদ সদস্যের মধ্যে মৌলভীবাজার-২ আসন থেকে বিএনপির প্রতিক ধানের শীষ নিয়ে নির্বাচিত সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহম্মেদ গত ৭ মার্চ শপথ নিয়ে সংসদে যোগ দেন। তাকে অনুসরণ করে গণফোরামের প্রতিক উদীয়মান সূর্য নিয়ে সিলেট-২ আসন থেকে নির্বাচিত দলটির আরেক নেতা মোকাব্বির খান গত ২ এপ্রিল শপথ নেন। এছাড়া গত ২৫ এপ্রিল বৃহস্পতিবার শপথ নেন ঠাকুরগাঁও-৩ আসন থেকে নির্বাচিত বিএনপির মো. জাহিদুর রহমান।

শপথ গ্রহণের সময়সীমার শেষ দিনে এসে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ছাড়া বিএনপির বাকি চারজনও সোমবার সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন। শপথ নেয়া এই চারজন হলেন- ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের উকিল আব্দুস সাত্তার, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের হারুনুর রশীদ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের আমিনুল ইসলাম এবং বগুড়া-৪ আসনের মোশাররফ হোসেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com