সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ০১:২৭ অপরাহ্ন

শ্রীপুরে কোরআন শিক্ষা দেওয়ার নানী আছিয়ার মদিনা যাওয়ার স্বপ্ন পূরণ হলো

খবরের আলো :

মহিউদ্দিন আহমেদ ,শ্রীপুর( গাজীপুর )প্রতিনিধি:গাজীপুরের শ্রীপুরে কাওরাইদ ইউনিয়নের বেল দিয়া গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের স্ত্রী ৫০ বছর যাবত কুরআন শিক্ষা দিচ্ছেন ( ৮২)বয়সের আছিয়া খাতুন ।
স্বপ্ন পূরণ হয়েছে কুরআনের নানী আছিয়ার, ওমরাহ হজ্জ করতে যাচ্ছেন সৌদি আরব। ইসলাম ধর্মকে ভালোবেসে, ইসলাম শিক্ষায় শিক্ষিত করতে মাঠে-ঘাটে, পথে-প্রান্তরে, এ বাড়ি থেকে ও বাড়িতে, ছোট্ট শিশু থেকে বয়স্ক বৃদ্ধ পর্যন্ত কুরআন শিক্ষা দিয়ে বেড়ান, তিনি আছিয়া খাতুন । শুধু তাই নয়, মৃত ব্যক্তিকে গোসল করানো থেকে শুরু করে কাফনের কাপড় পড়ানো যেন তার নেশা।

এলাকার  সর্বস্তরের মানুষ কুরআনের নানী বলেই ডাকে। এত বছর বয়সে চোখের দৃষ্টি প্রখর। কুরআনের ছোট ছোট অক্ষর গুলো দেখেন স্পষ্ট ভাবে।
এই সংবাদটি ছড়িয়ে পড়ে সর্বস্তরের সব জায়গায়। একটা সময় শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক এসআই শহিদুল ইসলাম মোল্লা বিষয়টি নিশ্চিত হতে কুরআনের নানী আছিয়ার বাড়িতে যান, গিয়ে দেখেন তিনি বাড়িতে নেই। বাড়িতে থাকা মানুষকে জিজ্ঞেস করলে তাঁরা বলেন অন্য বাড়িতে কুরআন পড়াচ্ছেন। অতঃপর সরেজমিনে গিয়ে দেখেন তিনি বেশ কিছু শিক্ষার্থীকে কুরআন পড়াচ্ছেন। তখন তিনি একটি ভিডিও করে ফেসবুকে পোস্ট করেন। ওই পোষ্টটি ভাইরাল হয়। ভিডিওটিতে আছিয়া খাতুন জানিয়েছেন, ‘মনে বড় ইচ্ছে ছিল, যাব মদিনায়’ পবিত্র রওজা মোবারক জিয়ারত করার জন্য। কিন্তু অর্থ সংকট থাকায় আমার স্বপ্ন পূরণ হবে কিনা জানিনা!
স্বপ্ন পূরণ হলে কার ভালো না লাগে! সেই স্বপ্ন পূরণ হচ্ছে কোরআনের নানী আছিয়ার।
তার স্বপ্ন ছিল মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা:) এর রওজা মোবারক জিয়ারত করার। সেই স্বপ্ন পূরণ করতে এগিয়ে এসেছে তরুণ ব‍্যবসায়ী সাদ্দাম হোসেন অনন্ত।
অবশেষে সেই আছিয়া বেগম ৪ মে দিবাগত রাত তিনটার ফ্লাইটে সৌদিয়া এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে ওমরা পালনের উদ্দেশ্যে রওনা দিচ্ছেন।
সাদ্দাম হোসেন অনন্ত বলেন, স্বপ্ন পূরণ করার সাধ্য যদি থাকে, কার ভালো না লাগে সেই স্বপ্ন পূরণ করার জন্য। কুরআনের নানী আছিয়ার স্বপ্ন পূরণ করার জন্যে চেষ্টা করেছি মাত্র।ফেসবুকে আমি ভিডিওটি দেখে ওই বয়স্কা নারীর খোঁজ খবর নিই। পরে পাসপোর্ট, ভিসা, বিমানের টিকিটসহ যাবতীয় খরচ দিয়ে তাকে ওমরা হজ্বে যাওয়ার ব্যবস্থা করিয়ে দিই।আল্লাহ পাকের ইচ্ছায় তিনি সফল ভাবে পবিত্র মদিনাতে রওজা মোবারক জিয়ারত করে আসবে।

আছিয়া খাতুন এর হাতে ভিসা তুলে দিচ্ছেন তরুণ ব্যবসায়ী সাদ্দাম হোসেন

জীবনের বড় ইচ্ছা পবিত্র কাবাঘর, মক্কা-মদিনা যাওয়া। কিন্তু অর্থ সংকটে সংসারে সে স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে পারেননি আছিয়া বেগম। অবশেষে ফেসবুকে পোষ্ট দেখে আছিয়া বেগমের স্বপ্ন পূরণে এগিয়ে এসেছেন সাদ্দাম হোসেন অনন্ত নামের এক ব্যবসায়ী।

আছিয়া বেগমের প্রতিবেশী কাওসার আহেমদ জানান, শুধু আমি না, আমার বাবাও তাঁর কাছ কোরআনের শিক্ষা নিয়েছি। এখন আমার ৮বছর বয়সী সন্তান তানবীর আহমেদ তাঁর কাছ থেকে কোরআন শিক্ষা নিচ্ছে। আমাদের আশপাশে অনেক মহিলা-পুরুষ এখনও তাঁর কাছ কোরআন শিক্ষা নিচ্ছে।

আছিয়া খাতুন বলেন, ব্যবসায়ী সাদ্দামের কাছে আমি চির কৃতজ্ঞ। তার মতো সন্তান প্রতিটা ঘরে জন্ম হোক। আল্লাহপাক আমাকে মদীনা শরীফে নেওয়ার পর সকলের জন্য দোয়া করব, আল্লাহ পাক সকলের মঙ্গল করুক।

শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) শহীদুল ইসলাম মোল্লা বিপিএম জানান, কুরআন শিক্ষার নানীর স্বপ্ন ইচ্ছে পূরন হচ্ছে। অনেক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি ব্যবসায়ী সাদ্দাম ও সংবাদকর্মীদের কাছে। দেশবাসী সকলে দোয়া করবেন যাতে নানী ওমরাহ হজ্জ পালনের পর আবার আমাদের মাঝে সুস্থভাবে ফিরে আসেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com