বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ০১:১২ পূর্বাহ্ন

সাতক্ষীরা সদর-০২ আসনে জামায়াতের ঘাঁটি ভেঙ্গে আ’লীগের দূর্গ তৈরীতে এমপি রবি

খবরের আলো  :
শেখ আমিনুর হোসেন,সাতক্ষীরা ব‍্যুরো চীফ: আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সাতক্ষীরা সদর-০২ আসনে আওয়ামীলীগের ঘাঁটি গড়ে আবারও নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে চাই এমপি মীর মোস্তাক আহমেদ রবি। সাতক্ষীরা সদরের ভোটাররা চাইছেন একজন মুক্তিযোদ্ধা এমপি। এই আসন থেকে নৌকার বিজয় ছিনিয়ে আনবে। তিনি এলাকার সাধারণ মানুষের সুঃখে-দুঃখে ও উন্নয়নে নিজেকে বিলিয়ে দেবেন, এলাকার জনপ্রতিনিধি হিসেবে নিজেকে একজন জনগণের চাকর হিসেবে ভাবেন, যার কাছে ধনী-গরীবের কোন ভেদাভেদ নেই। খেটে খাওয়া মানুষ থেকে শুরু করে সর্বস্থরের মানুষ সরাসরি তার সাথে সাক্ষাত করতে পারবেন এবং সেই মানুষটিই স্বাধীনতার স্বপক্ষের। এমনটিই আশা করছেন সাতক্ষীরা সদরের নির্বাচনী এলাকার সাধারণ জনগণ ও ভোটাররা। এমনিই একজন জনদরদী ও গণমানুষের নেতা সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও সদর আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি। ভালবাসা ও উন্নয়নের ছোয়ায় জামাতের ঘাঁটি ভেঙ্গে আওয়ামীলীগের দূর্গ তৈরীর কারিগর এমপি রবিকে আবারও যোগ্যতা ও উন্নয়নের বিচারে এমপি হিসেবে দেখতে চাই সাতক্ষীরাবাসী। যিনি ২০১৪ সালের ৫-ই জানুয়ারী দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বাধীনতার ৪৭ বছর পর আওয়ামীলীগের নৌকার প্রার্থী হিসেবে জয়লাভ করেন। যেখানে নিজ দলের অধিকাংশ নেতাই তাকে এবং নৌকার বিরোধীতা করেছিল। নিজ দলের বিরোধীতা ও ষড়যন্ত্রের মধ্যেও বিপুল ভোটে জয়লাভ করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা গণমানুষের নেতা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি। তিনি নির্বাচিত হওয়ার পর সদরের প্রায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সুউচ্চ ভবন, রাস্তা-ঘাট, ব্রিজ-কালভাট ও মসজিদ মন্দির এমপি রবির প্রচেষ্টায় উন্নয়নের ছোয়ায় পাল্টে গেছে সাতক্ষীরা সদর উপজেলা। তিনি সাধারণ মানুষের সাথে মিশে উন্নয়ন ও ভালবাসায় জামাত শিবিরের ঘাটি ভেঙ্গে আওয়ামীলীগের ঘাটি তৈরী করেছেন। জামাত অধ্যুষিত এলাকায় এই আসনে পূর্বে আওয়ামীলীগের কোন প্রার্থীই পাওয়া যেতনা। দলের সেই সব নেতারা আজ নৌকার প্রার্থী হওয়ার জন্য গণসংযোগসহ প্রচারে নেমেছেন। এর সকল কৃতিত্ব মীর মোস্তাক আহমেদ রবির। তিনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শ্যরে সৈনিক হিসেবে জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা মোতাবেক বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড ও সাফল্য তুলে ধরতে জনগণের দোয়ারে-দোয়ারে ঘুরে বেড়াচ্ছেন এবং করছেন উঠান বৈঠক। সাবেক এই তুখোড় সাহসী জেলা ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, রাজপথের আন্দোলন সংগ্রামের সাহসী মুজিব সৈনিক, মীর মোস্তাক আহমেদ রবি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মুজিবকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্ব ও আদর্শ্যের আদর্শিত ব্যক্তিত্ব, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট নৌ-কমান্ডো ০০০১ বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি। সাতক্ষীরার গরীব দুঃখী গণমানুষের নেতা রাজনীতিবিদ সাতক্ষীরাবাসীর প্রিয় মুখ। একজন সাদা মনের মানুষ, পরোপকারী, যিনি প্রতিহিংসার রাজনীতি করেননা। যিনি ভালবাসা ও উন্নয়ন দিয়ে সাতক্ষীরা  সদরবাসীর সর্বস্তরের জনতার গর্ব ও অহংকার আশার-আকাঙ্খার প্রদীপ হয়েছেন। যিনি মেহনতী ও শ্রমজীবি খেটে খাওয়া সাধারণ নিরীহ মানুষের সুখ-দুঃখের সর্বসময়ের সাথী। তিনি দিন-রাত নিজের আরাম-আয়েশকে বিসর্জন দিয়ে বিশ্ব সেরা প্রধানমন্ত্রী ও বাংলার­ গরীব দুঃখী মানুষের প্রাণের নেত্রী দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে সর্বস্তরের জনতার কাছে গিয়ে আবারো নৌকায় ভোট দিয়ে শেখ হাসিনার হাত কে শক্তিশালী করতে সাধারণ জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করতে রাজনীতির নিরলস দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। যার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় সদর উপজেলায় স্কুল কলেজ মাদ্রাসায় নির্মিত হচ্ছে সুউচ্চ ভবন। যা ইতিপূর্বে মানুষ দেখেনি। সাতক্ষীরা সদরে ২৬ টি চারতলা ভবন, ১০টি উর্দ্ধমূখী সম্প্রসারণ এবং ১৫টি একতলা একাডেমিক ভবন নির্মিত হচ্ছে। সদর উপজেলা খুব শিঘ্রই হতে যাচ্ছে শতভাগ বিদ্যুতায়ন। সদরের রাস্তা-ঘাট, ব্রিজ-কালভাট, মসজিদ মন্দির ও ঈদগাহের উন্নয়নের ছোয়ায় সদর উপজেলার চিত্র পাল্টে দিয়ে এলাকার সকল মানুষের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। সাতক্ষীরায় হাজার হাজার জনতাকে নিয়ে আওয়ামীলীগ সরকারের উন্নয়ন তুলে ধরে তার নিজস্ব উদ্ভাবন জননেত্রী শেখ হাসিনা উন্নয়ন দিবস পালন ও জননেত্রী শেখ হাসিনার ৭২তম জন্মদিন উপলক্ষে২৯ সেপ্টেম্বর সাতক্ষীরার ইতিহাসে বিশাল নারী সমাবেশ করেছেন।  প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের সুখ দুঃখ অবলোকন করতে সরেজমিনে ঘুরে বেড়ান তিনি। ঢাকায় গিয়ে সময় কাটাতে তাঁর ভাল লাগেনা। তিনি সব সময় সাধারণ মানুষের পাশে থেকে কাজ করতে ভাল বাসেন। বর্তমান সময়ে তাঁর নেতৃত্বের বিকল্প নেই। তিনি একজন দাতা, দয়ালু, ন্যায় পরায়ন ব্যক্তিত্ব। কোন প্রকার হিংসা, ঘৃনা, অহংকার নেই তার মনে। তিনি এমনই একজন ব্যক্তিত্ব যিনি প্রত্যেহ সকালে ঘুম থেকে উঠে মহান আল্লাহ ও রাসূল কে স্মরন করে হাসি মুখে বেরিয়ে যান অসহায় মানুষের সেবা ও সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও দলীয় সাংগঠনিক কর্মকান্ডে। জনস্বার্থে সকল প্রকার উন্নয়ন সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে তিনি সকলের মাঝে হয়ে উঠেছেন এক জনপ্রিয় জননন্দিত নেতা,জনসেবক থেকে জনসম্রাট। যা এক ঐতিহাসিক দৃষ্টান্ত। সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ১৪টি ইউনিয়ন ও পৌরসভার ০৯টি ওয়ার্ড এবং গ্রামাঞ্চলের বিভিন্ন ওয়ার্ডে আওয়ামীলীগ সরকারের উন্নয়ন ও সাফল্য উঠান বৈঠকের মাধ্যমে তুলে ধরছেন। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের কথা জনগণের মাঝে তুলে ধরছেন এই জননেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি। জেলার প্রতিটি সভা-সেমিনারে তিনি দেশের উন্নয়নের জোয়ার ধরে রাখতে জনগণকে আবারো নৌকায় ভোট দিয়ে দেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখারর আহবান জানিয়ে যাচ্ছেন। বাংলার উন্নয়নের কারিগর,মহিয়সী নেত্রী বঙ্গকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়নের এই ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে আবারো সাধারণ মানুষকে নৌকায় ভোট দিতে ঐক্যবদ্ধ করে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে পারলেই বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠিত হবে এমনটিই মনে করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি। দেশের উন্নয়নের কথা ভেবে তিনি সকলকে আবারো নৌকার বিজয়ের মাধ্যমে উন্নয়নের করিগর, ডিজিটাল বাংলার রুপকার,মাদার অব হিউম্যানিটি জননেত্রী শেখ হাসিনার হাত কে শক্তিশালী করতে সকল আমজনতাকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহবান জানাচ্ছেন। সাতক্ষীরা সদর উপজেলাবাসীর প্রাণের দাবী আগামী একাদ্বশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আবারও তাঁকে সাতক্ষীরা সদর আসনের সংসদ সদস্য হিসেবে দেখতে চাই। গরীব-দুঃখী গণমানুষের নেতা জনপ্রিয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি’কে যোগ্যতার বিচারে আবারও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার দলীয় মনোনয়ন দেবেন এবং এই মনোনয়ন নিয়ে তিনি আবারও বিপুল ভোটে জয়লাভ করবেন এটাই সদর উপজেলাবাসীর প্রত্যাশা।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com