রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ০৯:০৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
 ভয়াল ২৫ জুলাই নালিতাবাড়ীর সোহাগপুর গণহত‍্যা দিবস  পোস্তগোলা শ্মশান ঘাট এলাকায়,গরুর হাট  বসিয়ে,মসজিদের গেট অবরুদ্ধ! শরীয়তপুরে রেকর্ড ১৫৮ জনের করোনা শনাক্ত   রাজধানীতে একশত বধিরের মাঝে ত্রাণ ও নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান মানিকগঞ্জের সদর উপজেলার  ধলেশ্বরী নদী থেকে ৭ টি অবৈধ ড্রেজার বাজেয়াপ্ত  মানিকগঞ্জে  প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ঈদ উপহার পৌছেদিলেন – জেলা প্রশাসক আব্দুল লতিফ  মাধবপুরে বন্যপাখী উদ্ধারে চিরুনী অভিযান শিবচরে পাট ক্ষেতে নিয়ে ১৪ বছরের  কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ : নবাগত ইউএনও’র সঙ্গে মাধবপুর প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের মতবিনিময় ফরিদপুর মধুখালীতে রাতের আঁধারে আশ্রয় প্রকল্পের নির্মানাধীন ঘরের পিলার ভাংচুর।

প্রশ্নফাঁসের অভিযোগে ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের ফল স্থগিত

খবরের আলো রিপোর্ট :

 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ঘ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ স্থগিত করেছে কর্তৃপক্ষ। প্রশ্নফাঁসের অভিযোগ ওঠায় ফল স্থগিতের সিদ্ধান্ত নেয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। সোমবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়।

এর আগে সকাল ১১টার দিকে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ভর্তি পরীক্ষার ফল আগামীকাল মঙ্গলবার দুপুর ১টায় কেন্দ্রীয় ভর্তি অফিসে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করা হবে। এরপরই দুপুর ১টা ৪ মিনিটে আরেক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, উপাচার্য দফতরের অ্যাসাইনমেন্ট অফিসারের পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তির কার্যক্রম স্থগিত করা হলো। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে যথাসময়ে প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানানো হবে।

গত ১২ অক্টোবর শুক্রবার ‘ঘ’ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষা শুরুর পৌনে এক ঘণ্টা আগে হাতে লেখা প্রশ্ন ফাঁস হয় বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। হাতে লেখা প্রশ্নের বাংলায় ১৯টি, ইংরেজিতে ১৭টি, সাধারণ জ্ঞান ৩৬টি (বাংলাদেশ ১৬, আন্তর্জাতিক ২০) মোট ৭২টি প্রশ্ন হুবহু মিলে যায়।

সেদিন সকাল ১০টা ২৮ মিনিটে ফাঁস হওয়া প্রশ্নের কপিগুলো বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর অফিসে নিয়ে আসেন কয়েকজন সাংবাদিক। সেটি বিশ্ববিদ্যালয় সহকারী প্রক্টর সোহেল রানার কাছে জমা দেন তারা। পরীক্ষা শেষে অনুষ্ঠিত পরীক্ষার সঙ্গে ফাঁস হওয়া প্রশ্ন হুবহু মিলে যায়।

তাৎক্ষণিক সহকারী প্রক্টর সোহেল রানা বলেন, পরীক্ষার আগে প্রশ্নগুলো বের হলে সেটি ফাঁস হওয়া বলা যেতে পারে। কিন্তু পরীক্ষা চলাকালে বের হলে সেটাকে প্রশ্ন ফাঁস বলা যাবে না। আমার মনে হয় কেউ পরীক্ষার হল থেকে ছবি তুলে বাইরে পাঠিয়ে দিয়েছে। এ চক্রকে আমরা ধরার চেষ্টা করছি। আর এটি হয়তো নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না ক্যাম্পাসের বাইরে কেন্দ্র বেশি হওয়ায়। এ সমস্যাগুলো ক্যাম্পাসের বাইরের কেন্দ্রগুলোতে হয়ে থাকে।

ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নফাঁসের অভিযোগ এনে পরীক্ষা বাতিলের দাবি তোলে প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনগুলো। এদিকে শনিবার বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সহযোগিতায় ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নফাঁস ও ডিজিটাল জালিয়াতির অভিযোগে ৬ জনকে গ্রেফতার করে সিআইডি।

এ ঘটনায় রাজধানীর শাহবাগ থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা কামরুল আহসান।

মামলার এজহারে উল্লেখ করা হয়, আসামিরা পরীক্ষার দিন রাত ১২টা ৫ মিনিট থেকে সকাল ১১টা পর্যন্ত প্রশ্নফাঁস করে। তারা মোবাইল সিমকার্ড, ইন্টারনেট, ডিজিটাল ডিভাইস ব্যবহার করে জালিয়াতির মাধ্যমে ডিজিটাল সিস্টেমে প্রবেশ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও বিভিন্ন দফতরের নিয়োগ পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র সংগ্রহ এবং তা স্থানান্তর করে অবৈধভাবে অর্থ গ্রহণ করে আসছিল।

রোববার বিষয়টি নিশ্চিত করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী। তিনি বলেন, সিআইডি প্রশ্নপত্র জালিয়াতি চক্রের ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতাররাসহ আরও কয়েকজনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেছি। এটা একটা চলমান প্রক্রিয়া। কেউ অপরাধ করে ছাড় পাবে না।

গ্রেফতাররা হলেন- জাহিদুল ইসলাম (৪৫), ইনসান আলী রকি (১৯), মোস্তাাকিম হোসেন (২০), সাদমান সালিদ (২১), তানভির আহমেদ (২১) ও আবু তালেব (১৯)।

এর আগে গত বছরও ভর্তি পরীক্ষায় ‘ঘ’ইউনিটের প্রশ্নপত্র ফাঁস হওয়ার অভিযোগ উঠেছিল। টানা তিনবার ‘ঘ’ ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নফাঁসের অভিযোগ আমলে না নিয়ে ফল প্রকাশ করতে যাচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com