রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ০৭:৪০ পূর্বাহ্ন

বেনাপোল নোম্যান্সল্যান্ডে এক ঐতিহাসিক মুহুর্তে জাতির জনকের ম্যুরাল হস্তান্তর

খবরের আলো :

 

 

মনা ,বেনাপোলে প্রতিনিধিঃ বেনাপোল নোম্যান্সল্যান্ডে এক ঐতিহাসিক মুহুর্তে জাতির জনক বঙ্গ বন্ধু শেখ মুজিবুর রহামানের ম্যুরাল (ভাস্কর্য) হস্তান্তর করলেন ভারতের কোলকাতা নিযুক্ত বাংলাদেশ দুতাবাসের ডেপুটি হাই কমিশনার বি এম জামাল হোসাইনের নিকট যশোর জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বেনাপোল পৌর মেয়র আশরাফুল আলম লিটন। মঙ্গলবার দুপুর ২ টার সময় ৩ ফুট ৬ ইঞ্চি এ ম্যুরালটি আনুষ্ঠানিক ভাবে হস্তান্তর করেন মেয়র আশরাফুল আলম লিটনের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল। এর আগে বেনাপোল নোম্যান্সল্যান্ডে কোলকাতায় নিযুক্ত ডেপুটি হাই কমিশনার আসলে বেনাপোল পৌরসভার পক্ষ থেকে উত্তরীয় পরিয়ে দেন মেয়র লিটন। এসময় ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশ দুতাবাসের ডেপুটি হাই কমিশনার এর সাথে উপস্থিত ছিলেন কোলকাতায় নিযুক্ত বাংলাদেশ দুতাবাসের ফাস্ট সেক্রেটারি কমার্শিয়াল মোঃ শামসুর আরিফ, প্রটোকল অফিসার আজিজুল আলম। অপরদিকে মেয়র লিটনের সাথে উপস্থিত ছিলেন বেনাপোল পৌর প্যানেল মেয়র সাহাবুদ্দিন মন্টু, বেনাপোল কাস্টমস এর সহকারি কমিশনার আব্দুল মতিন সরকার, বেনাপোল ইমিগ্রেশন ওসি আবুল বাশার, কাস্টমস সুপার ইমদাদুল হক, বেনাপোল চেকপোস্ট আইসিপি ক্যাম্পের বিজিবি সুবেদার বাকি বিল্লাহ, এন এস আই, ডি জি এফ আই সদস্য সহ প্রমুখ। কোলকাতায় নিযুক্ত বাংলাদেশী দুতাবাসের ডেপুটি হ্ইা কমিশনার বি এম জামাল হোসাইন বলেন, বঙ্গবন্ধুর মুর‌্যাল কোলকতার বেকার হলে স্থাপন করা হবে। এ ম্যুরালটি বাংলাদেশের প্রধান মন্ত্রী পাঠিয়েছেন বেনাপোল পৌর মেয়র এর মাধ্যমে। ম্যুরালটি হাতে পেয়ে মনে হচ্ছে এটি একটি ঐহিহাসিক মুহুর্ত। তিনি বলেন ভারতের কোলকাতার বেকার হলের ২৪ নং কক্ষে থাকতেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তিনি কোলকাতার তালতলার স্মিথ লেনে অবস্থিত সরকারি বেকার হোস্টেলের আবাসিক ছাত্র ছিলেন। ভারত বর্ষের রাজনীতির অবিস্মরণীয় সব ইতিহাস বেকার হোস্টেলকে সমৃদ্ধ করেছে। আর সেই বেকার হোস্টেলকে আরো স্মরণীয় ও বরনীয় করেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিুবর রহমান। আগামী আগস্ট মাসের ৩ তারিখে বাংলাদেশের স্থানীয় সরকার , পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয় মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম ম্যুরালটির শুভ উদ্বোধন করবেন। যশোর জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বেনাপোল পৌর মেয়র আশরাফুল আলম লিটন বলেন, আজ আমারা অত্যান্ত গর্বিত। জাতির জনকের মর্যদা সারা বিশ্বে। জাতির জনককে কোলকাতার বেকার হলে আরো আগে সেদেশের সরকার মর্যদা দিয়েছে। ওই হলের ২৪ নং কক্ষে থাকতেন বঙ্গবন্ধু। এরপর ভরতের পশ্চিবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসু ১৯৯৮ সালে বেকার হোস্টেলের ২৪ নং কক্ষের সাথে ২৩ নম্বর কক্ষটি যুক্ত করে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি কক্ষ গড়ার রয়েছে জাতির জনকের পড়ার চেয়র টেবিল একটি কাঠের আলমারি ও খাট। রয়েছে আলোক চিত্র আরও বেশ কিছু বই। আজ বাংলাদেশে নির্মিত জাতির জনকের ম্যুরাল আমরা ভারতে জাতির জনকের স্মৃতি বিজড়ীত হলে পাঠাতে পেরে গোটা জাতি গর্বিত।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com