মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ০১:১৫ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
এক দিনের জন্য ব্যাংক লেনদেনের সময় বাড়ল রোজায় করোনা সংক্রমণ বাড়ার প্রমাণ পাওয়া যায়নি: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মানুষের দুর্ভোগ আরও কিছুদিন বাড়বে: রেলমন্ত্রী সর্বাত্মক লকডাউনের আগে যেভাবে ঢাকা ছাড়ছেন হাজারো মানুষ আ.লীগ নেতার বাড়িতে ব্যবসায়ীর লাশ, এসপি অফিস ঘেরাও রাজৈরে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ দৌলতপুরে লকডাউন কার্যকর করতে মাঠে নেমেছে প্রশাসন জাতীয় গনমাধ্যম সপ্তাহকে রাষ্ট্রীয় স্মীকৃতির দাবীতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করে শ্রীপুরে তথ্য সংগ্রহ করতে গিয়ে ইউপি সদস্য কর্তৃক সাংবাদিকের উপর হামলা বাবরকে দেখে শিখুক কোহলি!

নোবেলের কথায় ‘রবীন্দ্রনাথের চূড়ান্ত অপমান’ দেখছে কলকাতার মিডিয়া!

খবরের আলো  ডেস্ক :

 

 

রিয়েলিটি শো সা রে গা মা পা দিয়ে আলোচনায় আসা মইনুল আহসান নোবেলের একটি ভিডিও ক্লিপ নিয়ে তীব্র সমালোচনা হচ্ছে। সেই ভিডিওতে করা তার মন্তব্যকে বাংলা সাহিত্যে নোবেলজয়ী বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের চূড়ান্ত অপমান হিসেবেই করছে কলকাতার সংবাদমাধ্যম। এ প্রসঙ্গে একাধিক প্রতিবেদন এসেছে কলকাতা থেকে প্রকাশিত শীর্ষস্থানীয় বাংলা সংবাদমাধ্যমগুলোতে।

এর মধ্যে টাইমস অব ইন্ডিয়ার বাংলা ভার্সনে (এই সময়) শিরোনাম করা হয়েছে, রবীন্দ্রনাথকে চূড়ান্ত অপমান, নোবেলের ঔদ্ধত্যে চাবকাতে চান ইমন! (ভারতের জাতীয় পুরস্কারজয়ী গায়িকা ইমন চক্রবর্তী)। নোবেলের মন্তব্যের জন্য তাকে ‘চাবুক মারতে’ চান বলে ইচ্ছা প্রকাশ করে ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছিলেন ইমন চক্রবর্তী। সেটার কথাই শিরোনামে উল্লেখ করা হয়েছে।
একই প্রতিবেদনের ভেতরে চুম্বক অংশ হিসেবে একটি লাইন দেয়া লেখা হয়েছে, সরাসরি রবীন্দ্রনাথকে তিনি (নোবেল) নাকচ করে দিলেন।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে নোবেল বলেছেন, প্রিন্স মাহমুদ স্যারের লেখা এই গানটা নিয়ে আমি একটা কথা বলবো। তা নিয়ে হয়তো অনেকে অনেক কিছু আমাকে বলতে পারে। হয়তো খারাপ মনে করতে পারে। তবে এটা আমার ব্যক্তিগত মত একদমই। আমি মনে করি যে, আমাদের জাতীয় সঙ্গীত ‘আমার সোনার বাংলা’ আমাদের দেশটাকে যতটা এক্সপ্লেইন করে তার থেকে কয়েক হাজার গুণে বেশি এক্সপ্লেইন করে প্রিন্স মাহমুদ স্যারের লেখা এই গানটা। আমাদের জাতীয় সঙ্গীত যেটা আছে সেটা হয়তো রূপক অর্থে অনেক কিছু বুঝিয়ে দেয়। বাট এটা কিন্তু একদম স্ট্রেইট ফরোয়ারডলি আমাদের ইতিহাস, আমাদের ঐতিহ্য, আমাদের আবেগের স্থানটা প্রপারলি তুলে ধরে।

তখন উপস্থাপক বলেন, সেটার কারণ হয়তো রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখাটা তো আসলে অনেক আগের লেখা। এনথেম হিসেবে লেখনওনি।

নোবেল আরও  বলেন, আর আপনারা জানবেন যে, ঢাকা ইউনিভার্সিটির অনেকে কিন্তু মিছিলও করেছিলো যে এই গানটাকে জাতীয় সঙ্গীত হিসেবে করা হোক আরকি।

নিউজ এইটিনের বাংলা ভার্সনেও একই ধরনের শিরোনাম করা হয়েছে, বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত নিয়ে রবীন্দ্রনাথকে অপমান, নতুন বিতর্কে নোবেল।

ওয়ান ইন্ডিয়া নামক আরেকটি পোর্টালে শিরোনাম করা হয়েছে, নোবেলকে ‘চাবকে’ ঠিক করার বার্তা ইমনের! রবীন্দ্রনাথকে বাংলাদেশী গায়কের চরম অপমান নিয়ে তোলপাড়।

এতে অনেকে নোবেলের সমালোচনা করে বলেছেন, কাউকে অপমান করতে তার সমতুল্য হওয়া দরকার।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com