সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১, ০৪:৩৩ পূর্বাহ্ন

চাঁদপুর হাজীগঞ্জে স্কুলছাত্রীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ

খবরের আলো :

 

 

মো: জসীম উদ্দীন চৌধুরী:হাজীগঞ্জে এক স্কুলছাত্রীকে স্কুলে যাওয়ার সময় ধর্ষণ করেছে সাখাওয়াত হোসেন নামে এক যুবক। এ ঘটনায় ধর্ষিতার বড় ভাই বাদী হয়ে ৩ জনকে আসামি করে বৃহস্পতিবার রাতে হাজীগঞ্জ থানায় মামলা করেছে। মামলায় আসামিরা হলো- বখাটে সাখাওয়াত হোসেন (২০), তার বড় ভাই মীর হোসেন (২৬) ও তাদের পিতা মো আবদুল লতিফ। মামলার অভিযোগে উল্লেখ্য করা হয়, উপজেলার গর্ন্ধব্যপুর উত্তর ইউনিয়নের জগন্নাথপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী (১৮) প্রতিদিন স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে একই ইউনিয়নের মোহাম্মদপুর গ্রামের পূর্ব ফরাজী বাড়ীর আবদুল লতিফের ছেলে বখাটে সাখাওয়াত তাকে প্রেম নিবেদন করতো এবং বিভিন্ন কু-প্রস্তাব দিতো। বিষয়টি ওই ছাত্রী তার পরিবারের লোকজনকে জানালে পরিবারের পক্ষ থেকে বখাটে সাখাওয়াতের পরিবারসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের অবহিত করে। তার পরেও সাখাওয়াত ওই ছাত্রীকে একই ভাবে কু-প্রস্তাব দিতে থাকে।
গত সোমবার দুপুরে ওই ছাত্রী স্কুলে যাওয়ার পথে সাখাওয়াতসহ কয়েকজন ওই ছাত্রীকে নেশা জাতীয় দ্রব্য দিয়ে অচেতন করে সিএনজি চালিত অটোরিকশা করে অপহরণ করে। পরবর্তী ছাত্রীর জ্ঞান ফিরলে বুঝতে পারে একটি বহুতল ভবনের বন্ধ ঘরে সে আছে।সাখাওয়াত অপহরণ করে তাকে চট্টগ্রামে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে কয়েকবার ধর্ষণ করে। বৃহস্পতিবার ভোর ৪টায় ওই নির্যাতিত ছাত্রীকে অচেতন অবস্থায় তাদের গ্রামের বাড়ির সম্মুখে এনে ফেলে দিয়ে যায়। লোকজনের শোর-চিৎকারে তাকে উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে যায়। কিছুক্ষণ পর তার জ্ঞান ফিরলে সে পরিবারের সকলকে ঘটনাটি খুলে বলে।
এ বিষয়ে হাজীগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর হোসেন রনি দৈনিক খবরের আলোকে বলেন, এ ঘটনায় ৩ জনকে আসামি করে নির্যাতিত ছাত্রীর বড় ভাই মামলা দায়ের করেছেন। ভিকটিমকে মেডিকেল পরীক্ষা করানোর জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তার করার জন্য অভিযান অব্যাহত আছে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com