সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১, ০৩:০১ পূর্বাহ্ন

ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের হামলায় ভিপি নুরসহ আহত ৭

গলাচিপায় বুধবার ছাত্রলীগ ও যুবলীগ নেতাকর্মীদের হামলায় ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুরসহ ৫/৭ জন আহত হয়েছেন। ঘটনার পর পুলিশ নুরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তিনি গ্রামের বাড়ি চলে যান।

সূত্র জানায়, নুরুল হক নুর বুধবার গ্রামের বাড়ি উপজেলার চরবিশ্বাস থেকে মোটরসাইকেল বহর নিয়ে দশমিনা উপজেলায় বোনের বাড়ি যাওয়ার উদ্দেশ্যে রওয়ানা করেন। দুপুর ১টায় উলানিয়া বন্দরে পৌঁছলে কতিপয় দুর্বৃত্ত লাঠি ও লোহার রড নিয়ে নুর ও তার সফরসঙ্গীদের ওপর হামলা চালায়। নুর দৌড়ে একটি ঘরে আশ্রয় নেন। ঘটনার পরপরই সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. হাফিজুর রহমান ও গলাচিপা থানার অফিসার ইনচার্জ আখতার মোর্শেদ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছান। তারা নুরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান।

নুরের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তার সফরসঙ্গী ঢাকার সোহরাওয়ার্দী কলেজের বন্ধু রুবেল জানান, উলানিয়া বন্দরে পৌঁছলে তাদের ওপর ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীরা রড ও লাঠি দিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। এতে ভিপি নুরসহ অনেকে আহত হয়েছেন।

উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শরীফ আহমেদ আসিফ বলেন,“ভিপি নুরের উপর হামলার সঙ্গে ছাত্রলীগ কিংবা যুবলীগের কেউ জড়িত নয়। আমরা ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা দশমিনায় এমপি সাহেবের বাসায় দাওয়াত খেতে যাচ্ছিলাম। উলানিয়া বন্দরে পৌঁছে দেখি স্থানীয় কিছু যুবক ভিপি নুরের উপর হামলা করেছে। আমি এবং আমার সঙ্গীরা হামলাকারীদের সরিয়ে দিয়ে নুরের পাশে অবস্থান নেই। এরপর পুলিশের সঙ্গে কথা বলে তাকে হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করি।”

গলাচিপা থানার অফিসার ইনচার্জ মো.আখতার মোর্শেদ জানান, “ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর উলানিয়া বন্দরে হামলার শিকার হয়েছেন। খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে সিনিয়র পুলিশ সুপারসহ ঘটনাস্থলে পৌঁছে আমরা তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসি। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তিনি বাড়ি চলে গেছেন।”

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. মনিরুল ইসলাম জানান, নুরুল হক নুরের শরীরে সামান্য আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।ইত্তেফাক

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com