বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ০৮:২৯ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
মাধবপুরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শহীদ মিনার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান গাজীপুরে পোশাক নারী শ্রমিক গণধর্ষণের শিকার ত্রিশালে রাস্তার দূর্ভোগে লালপুর-কৈতরবাড়ী ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজা হলে অপরাধীদের মধ্যে ভীতিও থাকবে: কাদের ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড প্রস্তাব মন্ত্রিসভায় অনুমোদন পাহাড়পুর একিয়া ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিনব কায়দায় রোগীর সাথে প্রতারণা নবাবগঞ্জে অজ্ঞাত পরিচয় নারীর লাশ উদ্ধার মাধবপুরে করোনার ভাইরাসের সুযোগে বালু খেকোদের রমরমা ব্যবসা নৌকায় ভোট দেয়ার অপরাধে বিএনপি দলগতভাবেই এইসব অপকর্ম করেছিল -তথ্যমন্ত্রী বড়াইগ্রামে জোর পুর্বক ঘরবাড়ি ভাংচুর করে রাস্তা নির্মাণ

ব্লাড ডোনার”স এসোসিয়েশন রাজৈর এর উদ্যোগে ঈদ পুর্ন মিলনী অনুষ্ঠিত

খবরের আলো :

 

 

মোঃ হান্নান মিয়া রাজৈর (মাদারীপুর) সংবাদদাতাঃ মানবদেহের একটি অপরিহার্য উপাদান হচ্ছে রক্ত। রক্তের বিকল্প শুধু রক্তই। চিকিৎসা বিজ্ঞানে আজ পর্যন্ত রক্তের কোন বিকল্প আবিস্কার হয়নি। রক্তের অভাবে যখন কোন মানুষ মৃত্যুর মুখোমুখি দাঁড়ায় তখন অন্য একজন মানুষের দান করা রক্তই তার জীবন বাঁচাতে পারে। কিন্তু ১৬ কোটি মানুষের এদেশে স্বেচ্ছা রক্তদাতার সংখ্যা খুবই কম।

বাংলাদেশে প্রতিবছর প্রায় সাত লক্ষ ব্যাগ নিরাপদ ও সুস্থ রক্তের চাহিদা রয়েছে। এর  বিপরীতে মাত্র ২৬ ভাগ রক্ত সংগৃহীত হয় স্বেচ্ছা রক্তদাতার মাধ্যমে। বাকি ৭৪ ভাগ রক্তের জন্য রোগীরা ছুটে যায় আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধবসহ পরিচিতজনদের কাছে। সেখানেও ব্যর্থ হলে তারা পেশাদার রক্ত বিক্রেতার স্মরণাপন্ন হয়। এদের রক্ত নিরাপদ নয়। কারণ আত্মীয় ও পরিচিতজনের রক্ত অনেকে প্রয়োজনীয় স্ক্রিনিং ছাড়াই রোগীর শরীরে দিতে চায় যা অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। এদিকে পেশাদার রক্ত বিক্রেতাদের রক্ত আরো বিপজ্জনক। তাদের রক্ত ব্যবহারের ফলে রোগীর দেহে ঘাতকব্যাধির জীবাণু সংক্রমিত হতে পারে। এজন্য স্বেচ্ছা রক্তদাতার রক্তই সবচেয়ে নিরাপদ।

বাংলাদেশের স্বেচ্ছা রক্তদান আন্দোলন পরিস্থিতি নিয়ে ২ হাজার সালে বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা, রেড ক্রিসেন্ট ও এসোসিয়েশন অব ভলান্টারী ব্লাড ডোনার্স, ওয়েস্ট বেঙ্গলে অনুষ্ঠিত একটি কর্মশালায় উক্ত সংস্থাগুলো তাদের জরিপ উপস্থাপন করে। এতে উল্লেখ করা হয়, বাংলাদেশে প্রতি হাজারে মাত্র ০.৪ জন স্বেচ্ছায় রক্তদান করে। অথচ ইউরোপে প্রতি হাজারে স্বেচ্ছা রক্তদাতার সংখ্যা ৬০ থেকে ৮০ জন। সুইজারল্যান্ডে এ সংখ্যা বিশ্বের সর্বোচ্চ ১১৩ জন। অথচ বিশাল জনগোষ্ঠীর দেশে এ সংখ্যাকে প্রতি হাজারে মাত্র ২ জনে উন্নীত করতে পারলে বাংলাদেশের মোট রক্তের চাহিদা পূরণ করা সম্ভব হবে।

এই মহত উদ্যোগের সংগি সাথী হয়েছে একদল উদার মনের মানুষ জারা মাদারীপুর জেলার রাজৈর উপজেলার বাসিন্দা, নতুন এই্ সংগঠনের নাম- ব্লাড ডোনার”স এসোসিয়েশন রাজৈর- সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এম এম ফেরদৌস হোসাইন, সাধারন সম্পাদক মোঃ সোহাগ এর আহ্বানে আজ বিকাল ৪ ঘটিকার সময় রাজৈর থানার মোরে সুজন হোসেন রিফাত এর পরিচালনায় ঈদ পুন মিলনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। উক্ত ঈদ পুন মিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব শামীম নেওয়াজ চৌধুরী মেয়র রাজৈর উপজেলা মাদারীপুর, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজৈর ডিগ্রি কলেজের সাবেক ভাইস প্রিন্সিপাল আঃ হাশেম সিপাহী,, সংগঠনের সদস্য সংখ্যা ৮০ জন তাদের ভিতর বেশির ভাগ সদস্যই উপস্থিত ছিলেন সংগনের সদস্য ছাড়া আরো যারা উপস্থিত ছিলেন তারা হলেন  জনাব এফ আর মামুন সভাপতি সভাপতি রাজৈর উপজেলা প্রেস ক্লাব, জনাব কাওছার আলম মিঠু প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি রাজৈর উপজেলা প্রেস ক্লাব,জনাব জাহিদ হাসান প্রতিনিধি সি এন এন বাংলা টিভি, জনাব মোঃ হান্নান মিয় প্রতিনিধি দৈনিক খবরের আলো, প্রমুখ।

 

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com