রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ০১:২৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
মাধবপুরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শহীদ মিনার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান গাজীপুরে পোশাক নারী শ্রমিক গণধর্ষণের শিকার ত্রিশালে রাস্তার দূর্ভোগে লালপুর-কৈতরবাড়ী ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজা হলে অপরাধীদের মধ্যে ভীতিও থাকবে: কাদের ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড প্রস্তাব মন্ত্রিসভায় অনুমোদন পাহাড়পুর একিয়া ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিনব কায়দায় রোগীর সাথে প্রতারণা নবাবগঞ্জে অজ্ঞাত পরিচয় নারীর লাশ উদ্ধার মাধবপুরে করোনার ভাইরাসের সুযোগে বালু খেকোদের রমরমা ব্যবসা নৌকায় ভোট দেয়ার অপরাধে বিএনপি দলগতভাবেই এইসব অপকর্ম করেছিল -তথ্যমন্ত্রী বড়াইগ্রামে জোর পুর্বক ঘরবাড়ি ভাংচুর করে রাস্তা নির্মাণ

বর্তমানে এ দেশে ডাক্তার ও পুলিশ সকলেই আওয়ামী লীগ হয়ে গেছে : এ কে এম শামীম ওসমান

খবরের আলো :

 

 

স্টাফ রিপোর্টার সাহাদাৎ হোসেন শাহীনঃ নারায়ণগঞ্জে আবহানী ক্লাব থাকাতে শেখ কামাল ভাইয়ের নারায়ণগঞ্জে আসা যাওয়া হতো বেশি। আমার মনে পরে, শেখ কামাল ভাইসহ তৎকালীন সময়ের ৫’শ টপক্লাসের ছাত্রলীগ নেতারা বড় ভাইয়ের বিয়েতে উপস্থিত। কামাল ভাই একটা পর্যায়ে বলেছিলেন নারায়ণগঞ্জ যাওয়ার কথা। আমার বড় ভাই নাসিম ওসমানও তাতে সমর্থন দিয়ে বললেন নারায়ণগঞ্জে যাওয়ার কথা। পরদিন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়ার কথা । হঠাৎ করে কামাল ভাই বড় ভাইকে বিশ্ববিদ্যালয়ে আসতে না করলেন। তিনি তখন ভাইকে বললেন বৌভাতে তো বাবাও যাবে আমরা তার প্রোগ্রাম শেষ করে সবাইকে একসাথে নিয়ে তোমার বৌভাতে চলে আসবো। মানে জাতির জনকের আসার কথা ছিলো বৌভাতে। হয়ত আমি চিন্তা করি তারা যদি সেদিন শেখ কামাল ভাইসহ সবাই আসতেন, ইতিহাসটা হয়ত অন্যভাবে লেখা হতো। হয়ত সেইদিন সে গুটিকয়েক হত্যাকারীরা ব্যর্থ হতো। আমরা যে বলি অমুকে খুন করেছে তমুকে খুন করেছে খুনি কিন্তু ঘরের ভিতরেই ছিলো এবং সে দরজা খুলে দিয়েছিলো খন্দকার মোস্তাক। বাইরের শক্তি কিন্তু মারে নাই। বাইরের শক্তি পরিকল্পনা করেছিলো আর ভেতরের শক্তি হত্যা করেছিলো। শনিবার(৩১ আগস্ট) বিকেলে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ(স্বাচিপ) নারায়ণগঞ্জ জেলা কতৃক আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ একেএম শামীম ওসমান একথা বলেন। তিনি বলেন, আমার মাকে জিজ্ঞেস করেছিলাম স্বাধীনতা মানে কি? মা এক কথায় বললেন স্বাধীনতা মানে শেখ মুজিব আর শেখ মুজিব মানেই স্বাধীনতা। আমরা তাই বিশ্বাস করলাম এবং এখনো তাই বিশ্বাস করি। কিন্তু ৭৫’এ যখন জাতির জনককে হত্যা করা হলো তখন সেইদিন মাকে জিজ্ঞেস করেছিলাম স্বাধীনাত মানে যদি শেখ মুজিব হয় আর শেখ মুজিব মানে স্বাধীনতা হয় তাহলে কী আমরা এখন পরাধীন ? আমি দেখলাম আমার মা মাথা নিচু করে চুপ হয়ে কান্না করছিলেন। আমি বুঝলাম স্বাধীনতা হরণ হয়ে গিয়েছে। যে লোক সারাটাজীবন দেশকে নিয়ে দেশের মানুষকে নিয়ে স্বপ্ন দেখেছেন আমরা তাকেই মেরে ফেললাম! তিনিও বিশ্বাস করতে পারেন নাই বাঙালী জাতি তাকে হত্যা করবে। কত অকৃতজ্ঞ জাতি আমরা। পাকিস্তানী জাতি তাকে মারতে পারে নাই কিন্তু মারিয়েছে আমাদেরকে দিয়ে। এখনো কিন্তু সেই ষড়যন্ত্র চলছে। আমি এর শিকার তো তাই এইগুলোর গন্ধ আমি একটু বেশি পাই। বক্তব্য শেষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ ১৫ আগষ্টে নিহতদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া করা হয়। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, জেলা সিভিল সার্জন ডা.ইমতিয়াজ, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ(স্বাচিপ) কেন্দ্রীয় কমিটির মহাসচিব অধ্যাপক ডা. এম,এ আজিজ, কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. এম ইকবাল আর্সলান, সাংগঠনিক সম্পাদক অনুপ কুমার সাহা, দপ্তর সম্পাদক এহসান উদ্দিন খান,সদস্য ডা. দিলরুবা খান, খানপুর ৩’শ শয্যা হাসপাতালেরন তত্ত্বাবধায়ক ডা. আবু জাহের সহ স্বাচিপ নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার নেতৃবৃন্দরা।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com