শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ১১:৫২ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
মাধবপুরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শহীদ মিনার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান গাজীপুরে পোশাক নারী শ্রমিক গণধর্ষণের শিকার ত্রিশালে রাস্তার দূর্ভোগে লালপুর-কৈতরবাড়ী ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজা হলে অপরাধীদের মধ্যে ভীতিও থাকবে: কাদের ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড প্রস্তাব মন্ত্রিসভায় অনুমোদন পাহাড়পুর একিয়া ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিনব কায়দায় রোগীর সাথে প্রতারণা নবাবগঞ্জে অজ্ঞাত পরিচয় নারীর লাশ উদ্ধার মাধবপুরে করোনার ভাইরাসের সুযোগে বালু খেকোদের রমরমা ব্যবসা নৌকায় ভোট দেয়ার অপরাধে বিএনপি দলগতভাবেই এইসব অপকর্ম করেছিল -তথ্যমন্ত্রী বড়াইগ্রামে জোর পুর্বক ঘরবাড়ি ভাংচুর করে রাস্তা নির্মাণ

শ্রীপুরে প্রধান শিক্ষকের পদত্যাগ দাবিতে শিক্ষার্থীদের ক্লাস বর্জন

খবরের আলো :

শ্রীপুর( গাজীপুর )প্রতিনিধি: গাজীপুরের শ্রীপুরে বিভিন্ন অভিযোগে উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককের পদত্যাগের দাবিতে শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করে বিক্ষোভ মিছিল করেছে। এসময় আন্ত:স্কুল ফুটবল টুনান্টের ফাইনাল খেলায় শিক্ষার্থীদের ওপর হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিও জানানো হয়।
শনিবার সকালে উপজেলার তেলিহাটি ইউনিয়নের টেপিরবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো.জসিম উদ্দিনের পদত্যাগের দাবিতে ক্লাস বর্জন করে। পরে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে শিশু পল্লীপ্লাস সড়ক ঘুরে আবার বিদ্যালয়ের মাঠে অবস্থান নেয় শিক্ষার্থীরা। পরে দুপুরে বিদ্যালয়ের অভিভাবক সদস্যদের আশ্বাসে শিক্ষার্থীরা আগামীকাল সকালে আবার ক্লাস বর্জন করবে এই ঘোষনা দিয়ে চলে যা।
আন্দোলনের মুখে সকালে বিদ্যালয়ে ঢুকতে গিয়েও বিদ্যালয়ে প্রবেশ করতে পারেনি প্রধান শিক্ষক। এরপর থেকে তার ব্যক্তিগত মোঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
এছাড়াও প্রধান শিক্ষককের দুর্নীতির সহযোগিতা করায় বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মো.শফিকুল ইসলাম মোড়লকেও পদত্যাগের দাবি জানায় শিক্ষার্থীরা।
শিক্ষার্থীরা জানায়, আন্ত:স্কুল ফুটবল টুনামেন্টে টেপিরবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাদেও ওপর হামলার বিচার না করে উল্টে নিজের স্বার্থের জন্য আমাদের বহিস্কারের হুমকি দিয়ে চোপ করাতে বাধ্য করে। বিদ্যালয়ে প্রায় ৭৮২ জন শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে খেলাধুলা বাবদ ৬০০ করে টাকা আদায় করেছে। আদায়কৃত টাকার পরিমাণ প্রায় ৪ লক্ষ ৫০ হাজার। সম্পূর্ণ টাকা প্রধান শিক্ষক ও সভাপতি আত্মসাতের পায়তারা করছে। এছাড়াও প্রধান শিক্ষক মাসে ১০ দিনের মত উপস্থিত হন। বাকি সময় তিনি বিদ্যালয়ে আসেন। এই সুযোগে শিক্ষকরা ঠিকমত ক্লাস করাচ্ছেন না।
হামলার বিষয়ে আহত খেলোয়ার প্রিয় বলে, গত শুক্রবার সকালে আন্ত:স্কুল ফুটবল টুনামেন্টের ফাইনাল খেলে টেপিরবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয় ও হাজী ছোট কলিম উচ্চ বিদ্যালয়। ম্যাচ শুরু হওয়ার আগেই প্রধান শিক্ষক খেলোয়ারদের ঘোষনা দেন প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করা যাবে না। মাঠে শুধু দাঁড়িয়ে থাকতে হবে। এভাবে খেলা শেষ করলে প্রতিপক্ষরা জিতে যায়। এসময় আমাদের অপমান করে ছোট কলিম উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ভাড়াটিয়া লোকজন নিয়ে আমাদের ওপর হামলা চালায়। আহত হলাম, তবুও কোন শিক্ষক আমাদের রক্ষা করতে এগিয়ে আসলো না। প্রধান শিক্ষককে পরীক্ষা কেন্দ্রের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বের লোভ দেখিয়ে এমন পুতুল বানিয়ে দিয়েছে হাজী ছোট কলিম উচ্চ বিদ্যালয়। আমাদের ওপর হামলার বিচার চাই ও প্রধান শিক্ষক ও সভাপতির পদত্যাগ চাই।
হাজী ছোট কলিম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো.আব্দুল হান্নান সজল বলেন, ফুটবল খেলার সময় কোন ধরণের মারামারি হয়নি। এগুলো সব মিথ্যা কথা।
টেপিরবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মো.শফিকুল ইসলাম মোড়র বলেন, তৃতীয় পক্ষের প্ররোচনায় অযৌক্তিক আন্দোলন করছে শিক্ষার্থীরা। ক্রীড়া অনুষ্ঠান হয়েছে শিক্ষার্থীদের পুরষ্কার দেয়া হবে কিছু দিনের মধ্যে।
শ্রীপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো.সাইফুল ইসলাম বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। তবে কেউ এখনো আমার কাছে লিখিত অভিযোগ দেয়নি। তবুও বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com