শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ০২:৫৪ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
মাধবপুরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শহীদ মিনার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান গাজীপুরে পোশাক নারী শ্রমিক গণধর্ষণের শিকার ত্রিশালে রাস্তার দূর্ভোগে লালপুর-কৈতরবাড়ী ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজা হলে অপরাধীদের মধ্যে ভীতিও থাকবে: কাদের ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড প্রস্তাব মন্ত্রিসভায় অনুমোদন পাহাড়পুর একিয়া ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিনব কায়দায় রোগীর সাথে প্রতারণা নবাবগঞ্জে অজ্ঞাত পরিচয় নারীর লাশ উদ্ধার মাধবপুরে করোনার ভাইরাসের সুযোগে বালু খেকোদের রমরমা ব্যবসা নৌকায় ভোট দেয়ার অপরাধে বিএনপি দলগতভাবেই এইসব অপকর্ম করেছিল -তথ্যমন্ত্রী বড়াইগ্রামে জোর পুর্বক ঘরবাড়ি ভাংচুর করে রাস্তা নির্মাণ

শ্রীপুরে ভূল চিকিৎসায় নারীর গর্ভপাত

খবরের আলো :

 

 

শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধিঃ গাজীপুরের শ্রীপুরে নগর হাওলা গ্রামে গর্ভবতী এক নারীকে লিপি ফার্মেসীর মালিক আবুল হাশেম উজ্জলের ভুল চিকিৎসা দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে, মঙ্গলবার বিকালে সিরাজুল হক মাতব্বরের বাড়িতে।জানা যায়, ময়মনসিংহ জেলার কোতুয়ালী থানার জাফর মন্ডলপাড়া গ্রামের শহিদুল্লাহ’র কন্যা শাহানাজ আক্তার (১৯)। গত ৮মাস আগে জামালপুর জেলার মেলন্দা উপজেলার মাহাম্মদপুর গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে রাসেল মিয়া (২২) এর সাথে ইসলামিক শরিয়তমোতাবেক বিয়ে হয়। বিয়ের পর স্বামী নিয়ে উপজেলার নগরহাওলা গ্রামে সিরাজুল হক মাতব্বরের বাড়িতে ভাড়া থাকেন।রাসেল মিয়ার স্ত্রী বলেন, চার মাস যাবৎ মাসিক না হওয়ার কারনে পরামর্শের জন্য জৈনাবাজার লিপি ফার্মেসীর মালিক উজ্জল মিয়ার কাছে জানতে গেলে,বিষয় গুলো শোনে উজ্জল মিয়া আমাকে এম আর কিট নামক একটি পিল দিয়ে দেন। ওই পিল খাওয়ার পর থেকে আমার কোমরে ও তলপেটে ব্যাথা শুরু হয়। এবং অনেক রক্ত ক্ষরণ শুরু হয়। এতে আমি গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে যাই।শাহানাজের পিতা ,শহিদুল্লাহ বলেন,আমার মেয়ে চার মাসের সন্তান পেটে,আমার মেয়ের স্বামী ফার্মেসির মালিককে বেশি টাকা দিয়ে এই কাজ করেছে। ঔষধ বিক্রেতা জেনে শোনে ওই ঔষধ দেওয়ার কারনে সন্তান নষ্ট হয়ে গেছে। ফার্মেসির মালিক উজ্জল যদি ওই ঔষধ না দিতো তাহলে আজ আমার মেয়ের এঅবস্থা হতো না,আমার মেয়ে মরার পথে।লিপি ফার্মেসীর মালিক আবুল হাসেম উজ্জল বলেন, ওই মহিলা আমার কাছে বলেন দুই মাস যাবৎ মাসিক হয়না,তার কথা শোনে আমি এম আর কিট নামক পিল দিয়েছি। কিন্তু মহিলার পেটে সন্তান আছে কিনা তা আমি জানি না,এবং আমাকে বলে নাই। তবে এরকম হয়ে থাকলে আমি সকল চিকিৎসা করার ব্যবস্থা করে দিব।শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.মইনুল হক খান জানান,গর্ভপাত করাতে এই ওষুধ ব্যবহার করা হয়ে থাকে। তবে সোনোগ্রাফি করিয়ে রিপোর্ট দেখিয়ে ওষুধ খেতে হবে। কিন্তু সোনোগ্রাফি না করিয়েই খাওয়ানো যাবে না ওষুধ। না জেনে বুঝে খাওয়ানোর কারনেই পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। এই ওষুধ সুনিশ্চিত গর্ভপাত পিল, এটা মাসিক না হওয়ার পিল নয়। পরিক্ষা নিরীক্ষা বা প্রেসক্রিপশন ছাড়া এম আর কিট নামক পিল বিক্রি কারা যাবে না।শ্রীপুর উপজেলা নির্বহী কমৃকর্তা (ইউ এনও) শামসুল আরেফিন বলেন,বিষয়টি আমি মেডিকের অফিসারদের সাথে কথা বলে আইনানুক ব্যবস্থ গ্রহণ করা হবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com