সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ০৪:২২ অপরাহ্ন

প্রধান শিক্ষক পদে ২৯৬ জনকে গেজেটভুক্ত করার নির্দেশ

 

 

বৃহস্পতিবার, ০৫ মার্চ :জাতীয়করণ হওয়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পদে থাকা ২৯৬ জনকে তাদের আগের পদ প্রধান শিক্ষক পদে পদায়ন করে গেজেট প্রকাশের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বৃহস্পতিবার (৫ মার্চ) বিচারপতি নাইমা হায়দার ও বিচারপতি খিজির আহমেদ চৌধুরীর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ শিক্ষকদের দায়ের করা ৫টি রিট নিষ্পত্তি করে এই নির্দেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে ছিলেন অ‌্যাডভোকেট মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট শেখ শফিক মাহমুদ।

অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া সাংবাদিকদের বলেন, ‘সরকার ২০১৩ সালে ২৬ হাজার বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে সরকারিকরণ করে। পর্যায়ক্রমে এই স্কুলগুলোর শিক্ষকদের ২০১৩ সালের ১ জানুয়ারি থেকে সরকারি শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দিয়ে অফিস আদেশ জারি করা হয়। এক্ষেত্রে যে শিক্ষকরা সরকারিকরণের আগে যে পদে নিয়োগ পেয়েছিলেন, সরকারিকরণের পরও তারা স্ব স্ব পদে (প্রধান শিক্ষকদের প্রধান শিক্ষক হিসেবে এবং সহকারী শিক্ষকদের সহকারী শিক্ষক হিসেবে) নিয়োগ পেয়েছেন। কিন্তু  রিটকারীরা প্রধান শিক্ষক হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হলেও তাদের দ্বিতীয় ধাপে স্কুল জাতীয়করণের পর প্রধান শিক্ষকের পরিবর্তে সহকারী শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। যা বৈষম্যমূলক।  এই বৈষম্যের বিরুদ্ধে ভুক্তভোগীরা রিট দায়ের করেন।

রিটকারীরা হলেন—পটুয়াখালী জেলার আব্দুর রহিম, মো. হারুন, মো. হানিফ, অরুনা, মো. আরিফ হোসেন, মো. মনিরুজ্জামান, মো. সবুজ মিয়া, মো. রফিকউল্লাহ, বগুড়া জেলার নারগিছ আক্তার, প্রভাস চন্দ্র সরকার, বিউটি আক্তার, আয়েশা আক্তার, মো. মোজাম্মেল, মনসুর আলী ও কুড়িগ্রাম জেলার মো. আবু তাহের, মো. তাজুল ইসলাম, তানিয়া ইয়াসমিন, মো. ইউনুস আলী, মো. আব্দুল মান্নান, মো. আবেদ আলী, মো. রওজা আলী, মোসা. জাহানারা বেগমসহ ২৯৬ জন।

উল্লেখ‌্য, ২৯৬ জন শিক্ষক সরকারিকরণের আগে প্রধান শিক্ষক পদে কমিটির মাধ্যমে নিয়োগ পেলেও তাদের সহকারী শিক্ষক পদে অন্তর্ভুক্ত করে গেজেট প্রকাশ করা হয়েছিল।সুত্রঃরাইজিংবিডি ডট কম

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com