মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ১২:৪৬ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
মাধবপুরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শহীদ মিনার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান গাজীপুরে পোশাক নারী শ্রমিক গণধর্ষণের শিকার ত্রিশালে রাস্তার দূর্ভোগে লালপুর-কৈতরবাড়ী ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজা হলে অপরাধীদের মধ্যে ভীতিও থাকবে: কাদের ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড প্রস্তাব মন্ত্রিসভায় অনুমোদন পাহাড়পুর একিয়া ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিনব কায়দায় রোগীর সাথে প্রতারণা নবাবগঞ্জে অজ্ঞাত পরিচয় নারীর লাশ উদ্ধার মাধবপুরে করোনার ভাইরাসের সুযোগে বালু খেকোদের রমরমা ব্যবসা নৌকায় ভোট দেয়ার অপরাধে বিএনপি দলগতভাবেই এইসব অপকর্ম করেছিল -তথ্যমন্ত্রী বড়াইগ্রামে জোর পুর্বক ঘরবাড়ি ভাংচুর করে রাস্তা নির্মাণ

পেছাতে পারে মুজিববর্ষের বিশেষ সংসদ অধিবেশন

মঙ্গলবার, ১০ মার্চ :বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার প্রেক্ষাপটে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ডাকা সংসদের বিশেষ অধিবেশন পিছিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে আগামীকাল (বুধবার) জরুরি বৈঠকে বসতে যাচ্ছে সংসদের কার্য উপদেষ্টা কমিটি।

সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তারা বলছেন, এই বিশেষ অধিবেশনে ভাষণ দেওয়ার জন্য আমন্ত্রিত বিদেশি অতিথিদের না আসার প্রেক্ষাপটে এটি পিছিয়ে দেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, বিশেষ অধিবেশনের বিষয়ে এখনো কোনও সিদ্ধান্ত আসেনি। দুই-একদিনের মধ্যেই সিদ্ধান্ত জানতে পারবেন। তবে যে সিদ্ধান্তই আসুক তা সংবিধানের আলোকেই হবে।

এদিকে মুজিববর্ষ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ তার সাংবিধানিক ক্ষমতাবলে চলতি মাসের ২২ ও ২৩ তারিখ সংসদের বিশেষ অধিবেশন আহ্বান করেন। এ অধিবেশনে ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি এবং নেপালের রাষ্ট্রপতি বিদ্যা দেবী ভাণ্ডারী, কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো, ভুটানের রাজা জিগমে খেশর নামজেল ওয়াংচুক, মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ, ভারতের জাতীয় কংগ্রেসের সভাপতি সোনিয়া গান্ধী, সংযুক্ত আরব আমিরাতের যুবরাজ জায়েদ আল নাহিয়ান প্রমুখ। কিন্তু বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হওয়ার পর অতিথিরা আসবেন কিনা তা নিয়েও ধোঁয়াশা দেখা দিয়েছে।

সরকারের পক্ষ থেকেও ইতোমধ্যে জানানো হয়েছে, দেশে করোনার উপস্থিতি প্রমাণিত হওয়ায় কোনও বিদেশি অতিথি আসছেন না। সরকার ইতোমধ্যে মুজিববর্ষের ১৭ মার্চের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানও স্থগিত ঘোষণা করেছে।

সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে, অধিবেশন ডেকে তা পেছানো বা স্থগিতের কোনও ঘটনা দেশের সংসদীয় ইতিহাসে নেই। এই হিসেবে সংবিধানের বিধান রক্ষায় হলেও সাধারণ অবিবেশন হিসেবে এটাকে চালিয়ে নেওয়া হতে পারে।

উল্লেখ্য, ১৯৭৪ সালের ৩১ জানুয়ারি ও ১৮ জুন জাতীয় সংসদের বিশেষ অধিবেশন বসেছিল। যেখানে যথাক্রমে সাবেক যুগোস্লাভিয়ার রাষ্ট্রপতি জোসেফ মার্শাল টিটো এবং ভারতের রাষ্ট্রপতি ভিভি গিরি ভাষণ দিয়েছিলেন।সূত্র :বাংলাদেশ জার্নাল

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com