শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১১:৫৮ অপরাহ্ন

চাঁদপুর থেকে লাকসাম রেলপথের ও ট্রেনের নানা সমস্যা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে তুলে ধরা হবে

খবরের আলো :

 

মো: জসীম উদ্দীন চৌধুরী: চাঁদপুর-লাকসাম রেলপথের উন্নয়ন, স্টেশন ভবনগুলো রি-মডেলিং ও রেলওয়ের ব্রীজগুলোর জন্যে বরাদ্দ দেয়া (চাঁদপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য ডাঃ দীপু মনির প্রচেষ্টায় প্রাপ্ত এ বরাদ্দ) ২শ ১০ কোটি টাকার সমাপ্ত উন্নয়ন কাজের পরিদর্শন করে গেছেন বাংলাদেশ রেলওয়ের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা। জিআইবিআর তথা গভর্নমেন্ট ইন্সপেক্টর অব বাংলাদেশ রেলওয়ে মোঃ নাছির উদ্দিন গত বৃহস্পতিবার এ পরিদর্শনে আসেন। এ সময় তিনি চাঁদপুরস্থ রেলওয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও রেল শ্রমিক লীগের নেতাদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনাদের যে কোনো সমস্যা আমার কাছে লিখে পাঠাবেন, আমি সুপারিশ করে সরকারের কাছে পাঠাবো। আশা রাখি আমার সুপারিশে যে কোনো সমস্যা সমাধান করবে রেলওয়ের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। আমি গভর্নমেন্টের একজন প্রতিনিধি হিসেবে লাকসাম থেকে চাঁদপুর পর্যন্ত পরিদর্শনকালে রেলপথ, ব্রীজ, স্টেশন ভবন, ট্রেন ও ইঞ্জিনসহ যেসব সমস্যা পেয়েছি সেগুলো তুলে ধরে রিপোর্ট দেবো। আমার দপ্তর থেকে প্রতি বছর ১২টি স্টেশন এলাকা পরিদর্শন করার নিয়ম রয়েছে। তার ধারাবাহিকতায় আজকে চাঁদপুরে এ পরিদর্শন। উপস্থিত বিভিন্নজন তাঁর কাছে নানা সমস্যার কথা বলার পর তিনি বলেন, স্টেশন ভবন বড় করার ক্ষমতা আমার নেই। আমি শুধু ইন্সপেকশন করতে এসেছি।

তিনি গত বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টায় লাকসাম থেকে পরিদর্শন শুরু করে বিকেলে চাঁদপুর এসে পৌঁছেন। পথিমধ্যে হাজীগঞ্জ স্টেশনে নেমে স্টেশন ভবন পরিদর্শন করেন। এছাড়া এ পথের বিভিন্ন স্থানে মোটর ট্রলি থামিয়ে থামিয়ে রেলপথের লাইন পর্যবেক্ষণ করে বিভিন্ন সমস্যা লিপিবদ্ধ করেন। চাঁদপুর এসে স্টেশন ভবন এবং যাত্রীবাহী চাঁদপুর-চট্টগ্রাম রেলপথে চলাচলকারী সাগরিকা এঙ্প্রেস ট্রেনের ইঞ্জিনে উঠে ইঞ্জিন পর্যবেক্ষণ করে সমস্যাগুলো লিপিবদ্ধ করেন। তিনি ট্রেনের ভেতরে উঠে যাত্রীদের সাথে কথা বলেন এবং তাদের খোঁজখবর নেন। এ সময় যাত্রীরা ট্রেনের ভেতরে ফ্যান নেই বলে অভিযোগ করেন। তখন তিনি ফ্যান না থাকায় যাত্রীদের দুর্ভোগের কথা লিপিবদ্ধ করেন। তিনি ট্রেনের চাকার সাথের যন্ত্রাংশ পর্যবেক্ষণ করে তা লিপিবদ্ধ করেন। পরে তিনি চাঁদপুর স্টেশন মাস্টারের কার্যালয়ে স্টাফদের হাজিরা খাতা ও ফাস্ট এইড বঙ্রে ঔষধের মেয়াদকাল ঠিক আছে কি না তা সচক্ষে দেখেন। পরে তিনি পুরো স্টেশন এলাকা পরিদর্শন শেষে লাকসামের উদ্দেশ্যে চাঁদপুর ত্যাগ করেন।

এদিকে চাঁদপুরে আগমনের পর জিআইবিআরকে রেলওয়ে শ্রমিক লীগের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান এবং চাঁদপুরস্থ স্টাফদের বিভিন্ন দাবি তুলে ধরে স্মারকলিপি তুলে দেন রেল শ্রমিক লীগের সভাপতি মোঃ মাহবুবুর রহমান টিটিই। জিআইবিআর-এর পরিদর্শনকালে উপস্থিত ছিলেন ডিআরএম মোঃ জাহাঙ্গীর আলমসহ বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তা (ডিসিও) মোঃ মিজানুর রহমান, বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তা (ডিটিও) ফিরোজ ইফতেখার, বিভাগীয় প্রকৌশলী (ডিইএন) মোঃ রফিকুল ইসলাম, ডিএসটি, চট্টগ্রাম বিভাগীয় নিরাপত্তা কমান্ডেন্ট মোঃ আশবাবুল ইসলাম, উপ-সহকারী প্রকৌশলী কুমিল্লা (এইএন) আবরার হোসেন, কুমিল্লা-চাঁদপুরে দায়িত্বরত কর্মকর্তা এসএসএই (পথ) মোঃ লিয়াকত আলী মজুমদারসহ চট্টগ্রাম বিভাগীয় আরো বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। আরো উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার মোঃ জাফর আলম, সহকারী স্টেশন মাস্টার শোয়াইবুল শিকদার, শিমুল মজুমদার, রেলওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ সারওয়ার আলম, নিরাপত্তা ইনচার্জ আমিনুল হক, খোরশেদ আলম, রেল শ্রমিক লীগের সভাপতি মাহবুবুর রহমান টিটি, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ওয়াহিদুর রহমান, হেড বুকিং আব্দুস সালাম সরকার প্রমুখ।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com