রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৩৩ পূর্বাহ্ন

রাজধানীতে বোনকে উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় ভাইকে খুন

প্রতীকী ছবি

খবরের আলো রিপোর্ট :

 

ছোট বোনকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করে ছুরিকাঘাতে প্রাণ হারালেন সরকারপন্থী ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগের একজন নেতা। তার নাম তনয় ইসলাম পাভেল।

শনিবার দিবাগত রাতে রাজধানীর জুরাইন মাজার গেট এলাকায় ওই ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটে। রবিবার বেলা ১১টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পাভেলের মৃত্যু হয়।

পাভেল ৫৪ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাবেক সাংগাঠনিক সম্পাদক ছিলেন। সম্প্রতি ওই ওয়ার্ডে কমিটি স্থগিত হয়।

জুরাইনের ৪৪২/২ বাসায় ভাড়া থাকতেন ছাত্রলীগ নেতা। তার বাবা মনির হোসেন একজন ব্যবসায়ী।

কদিন আগেই বিয়ে করেছেন পাভেল। তবে বিবাহত্তোর সংবর্ধনা এখনও হয়নি। আর এর প্রস্তুতিই চলছিল।

স্বামীকে হারিয়ে পাগলপ্রায় তার স্ত্রী মাহিয়া।তিনি জানান, তার ননদকে উত্যক্ত করে আসছিল এক বখাটে যুবক। এতে তার পড়ালেখাও বন্ধের উপক্রম। আর বোনকে উত্যক্তের প্রতিবাদ করছিলেন পাভেল। আর তুহিন নামের সেই যুবক কয়েকজন সঙ্গীকে নিয়ে ছুরিকাঘাত করে তাকে।

রাতেই পাভেলকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। কিন্তু কয়েক ঘণ্টার আপ্রাণ চেষ্টাতেও তাকে বাঁচাতে পারেননি চিকিৎসকরা।

মাহিয়া বলেন, ‘তার ননদকে বখাটে তুহিন দীর্ঘদিন ধরে কলেজে আসা যাওয়ার পথে উত্যক্ত করত। গত সপ্তাহে পাভেল বিষয়টি জানতে পেরে এর প্রতিবাদ করে। এরপর তুহিন পাভেলকে দেখে নেয়ার হুমকি দেয়।’

‘গত শুক্রবার রাতে পাভেল ও মাসুমসহ আরও কয়েকজন যুবক পাভেলকে ছুরিকাঘাত করে। এতে ঘটনাস্থলেই তার নাড়িভুড়ি ও কলিজা বের করে হয়ে যায়। তাকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে নেয়া হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।’

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বাচ্চু মিয়া ঢাকাটাইমসকে জানান, গুরুতর আহত অবস্থায় পাভেলকে হাসপাতালে আনা হয়। সকালে আইসিউতে থাকা অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

শ্যামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান  লেন, ‘বখাটের ছুরিকাঘাতে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে বলে শুনেছি। এ ব্যাপারে খোঁজ নেয়া হচ্ছে। লাশ দাফন শেষে নিহতের পরিবার মামলা করবে।’

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com