শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ০২:৪৫ অপরাহ্ন

”ঢাকা শিক্ষা বোর্ড পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক এর সু-দৃষ্টি কামনা”

খবরের আলো :

 

 

মো: জসীম উদ্দীন চৌধুরী :  চলিত বৎসর সারাদেশের এস এস সি পরীক্ষার্থী ২০১৯ এর অনেক পরীক্ষার্থীরা পড়ছেন বড় ধরনের বিপাকে।গত ১৬/০৯/০১৮ইং ঢাকা শিক্ষা বোর্ড ও ০৫/০২/০১৮ ইং দুর্নীতি দমন কমিশনের দুইটি বিজ্ঞপ্তি জারীর ম্যাধ্যমে জানা যায়- যে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ১০ম শ্রেনীর নির্বাচনী পরীক্ষায় কোনো বিষয়ে ফেল করিলে তাদেরকে যেনো ফরম পূরুর করার সুযোগ না দেওয়া হয় এমনকি নির্বাচনী পরীক্ষার খাতা-পত্র ৬ মাস পর্যন্ত স-যতনেও রাখার নির্দেশ প্রদান করা হয়। এই ধরনের বিজ্ঞপ্তি জারীর ম্যাধ্যমে হাজার হাজার(১ বা ১ এর অধিক বিষয়ে ফেল) শিক্ষার্থী ১০ বৎসর একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে লেখা পড়া করার পর হঠাৎ করে এস এস সি পরীক্ষা ২০১৯ অংশ গ্রহন করতে পারছে না। এই নিয়ে শুধু শিক্ষার্থী-অভিভাবক নয় শিক্ষকগনও চিন্তিত।
যতটুকু জানা যায় কিছু কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কোমল মতি শিক্ষার্থীদের ভবিষৎ কথা চিন্তা করে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড এর পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক এর মৌখিক নির্দেশনায় ফেল করা শিক্ষার্থীদের ফেল করা বিষয় সূমহ এর রি এক্জাম পরীক্ষা ইতি মধ্যে নিয়েছেন। আবার কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারি বিজ্ঞপ্তি প্রতি সম্মান দেখিয়ে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড এর নতুন কোনো নির্দেশনা আশা পোষন করে আছেন।এ ব্যাপারে গাজীপুর জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট জনাব ড: দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ুন কবীরকে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি দৈনিক খবরের আলোকে জানান আমরা এ ব্যাপারে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডে চিটি দিয়েছি, উত্তর পাওয়া গেলেই সকল প্রতিষ্ঠানকে জানিয়ে দেওয়া হবে।
এই ব্যাপারে আজ বুধবার ঢাকা শিক্ষা বোর্ড এর পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক তপন কুমার সরকারের নিকট দৈনিক খবরের আলো পত্রিকার ষ্টাফ রিপোটার মো: জসীম উদ্দীন চৌধুরী এর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান-আমরা বিজ্ঞপ্তির মাঝে সব জানিয়ে দিয়েছি। এক বা একাদিক বিষয়ে ফেল করা শিক্ষার্থীর ১০ম শ্রেনীন ফরম পূরুন করা যাবে না এখন স্কুল থেকে তারা কত বার পরীক্ষা নিয়ে পাশ করিয়ে ফরম পূরন করবে সেটা তাদের ইচ্ছা।ইচ্ছা করলে তারা একের অধিক পরীক্ষা নিতে পারে, তাতে আমাদের কিছু বলার নেই। তিনি আরো জানান গাজীপুরের ডিসি অফিস থেকে আমাদের কাছে একটি চিঠি দিয়েছে আমরা কিছুদিনের মধ্যে সে চিঠির উত্তর জানাব।
টঙ্গীর সকল প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকবৃন্দ ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক তপন কুমার সরকার ও গাজীপুর জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট জনাব ড: দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ুন কবীরের নিকট কোমল মতি শিক্ষার্থীদের ভবিষৎ জীবরের কথা স্মরণ করে ব্যাবস্থা গ্রহন করার্থে নির্দেশ প্রদান করবেন বলে আশা পোষণ করেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com