মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ০৪:০০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :

ভারতের করোনা ভ্যাকসিনে বাংলাদেশ অগ্রাধিকার পাবে : শ্রিংলা

খবরের আলো :

 

ভারতের পররাষ্ট্রসচিব হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা আজ বুধবার দুপুরে রাজধানীর একটি হোটেলে সাংবাদিকদের কাছে এ মন্তব্য করেন। দুই দিনের ঢাকা সফরের দ্বিতীয় দিনে তিনি বাংলাদেশের পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেনের সঙ্গে মধ্যাহ্নভোজ সভা করেন। আলোচনা শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি।

হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা বলেন, ‘ভ্যাকসিন উৎপাদনের পর অগ্রাধিকার পাওয়া দেশের তালিকায় থাকবে বাংলাদেশ। কেননা, বাংলাদেশ আমাদের কাছে সব সময় অগ্রাধিকারের তালিকায় থাকা একটি দেশ। তিনি আরও জানান, ভারতের ভ্যাকসিনের তৃতীয় ধাপের ট্রায়ালের কাজ চলছে। ভারত  ব্যাপক আকারে এই ভ্যাকসিন উৎপাদনের প্রস্তুতি নিয়েছে।

মাসুদ বিন মোমেন বলেন, ‘কোভিড-১৯–এর সময়ে অর্থনৈতিক সহযোগিতাসহ নানা বিষয়ে সম্পর্ক কীভাবে এগিয়ে নেওয়া যায়, তা নিয়ে আমাদের বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। কোভিড মোকাবিলার অংশ হিসেবে ভারতে ভ্যাকসিন উৎপাদনের প্রস্তুতি চলছে। আমরা বলেছি ওই ভ্যাকসিনের ট্রায়ালের জন্য বাংলাদেশ প্রস্তুত। ভারত এ ব্যাপারে ইতিবাচক মনোভাব দেখিয়ে জানিয়েছে, সে দেশে যে ভ্যাকসিন উৎপাদিত হবে, তা শুধু ভারতের জন্যই নয়, আমাদেরও দেওয়া হবে। ভারতের ওষুধ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতার সুযোগ রয়েছে। এ ক্ষেত্রে আমরা ভারতের সহযোগিতা চেয়েছি।’ তিনি আরও জানান, করোনাভাইরাস সংক্রমণের পর্বে দুই দেশের মধ্যে যেসব ইতিবাচক পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে, তার পর্যালোচনা হয়েছে বেনাপোল-পেট্রাপোলে যেভাবে আটকে গিয়েছিল, সেই জায়গাতে ট্রেনের মাধ্যমে পণ্য চলাচলে অনেক অগ্রগতি হয়েছে। আস্তে আস্তে স্থলপথ খুলে দেওয়া হয়েছে। ট্রান্সশিপমেন্টের পরীক্ষামূলক চলাচল হয়েছে, যা ইতিবাচক।

 

 

মাসুদ বিন মোমেন বলেন, ‘আমাদের সম্পর্কের যেসব অস্বস্তির বিষয় আছে, তা নিয়ে আমরা কথা বলেছি। আমরা সীমান্ত হত্যা নিয়ে আলোচনা করেছি। আগামী মাসে আমরা চেষ্টা করব বিজিবি এবং বিএসএফ মহাপরিচালক পর্যায়ে বৈঠক আয়োজনের। ওই বৈঠকের আগে তিনি প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দেবেন, যাতে অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যুর ঘটনা আমরা পরিহার করতে পারি। অতীতের বিভিন্ন বিভিন্ন সময়ের তুলনায় এ বছর প্রথম সাত মাসে সংখ্যাটি বেড়ে গেছে এবং এ বিষয়ে আমাদের উদ্বেগ প্রকাশ করেছি। তা ছাড়া ভারতে কিছু জায়গায় বাংলাদেশিরা আটকে আছে। পশ্চিমবঙ্গের ধুবরি এলাকায় ২৫ জন জেলে আটকে আছে। ভারতের পররাষ্ট্রসচিব আশ্বস্ত করেছেন ওই লোকজন যাতে দ্রুত দেশে ফিরতে পারে, সে জন্য তিনি সহযোগিতা করবেন। তাবলিগ জামাতের কিছু লোক আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে এসেছেন এবং আরও শতাধিক লোক এখনো ভারতে রয়ে গেছেন। তাঁদের ফেরত আনার বিষয়টি চলমান রয়েছে।’

 

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com