সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০৮:৩৪ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
তামুলপুরে মুখ‍্যমন্ত্রী ডঃ হিমন্ত ১১শ ৫ জন প্রাক্তন ক‍্যাডারদের মাঝে ৪লক্ষ টাকার ফিক্সড ডিপোজিট সার্টিফিকেট বিতরণ করলেন। রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির শ্রেষ্ঠ স্বেচ্ছাসেবকদের সম্মাননা ও পুরস্কার প্রদান শেরপুরে শীত বাড়াতে লেপ-তোষক তৈরিতে ব্যস্ত কারিগররা          আম গাছে ঝুলছিল স্কুল ছাত্রীর লাশ অর্থ আত্মসাৎ অভিযোগে নায়িকা জ্যাকুলিন আটক চন্দনাইশের সাতবাড়ীয়া নির্বাচনে সাফাত বিন ছানাউল্লাহ্’র মনোনয়নপত্র সংগ্রহ মানবিক মেম্বার আলম হাওলাদারের সাথে ড্রিম লাইট’র সৌজন্য সাক্ষাৎ শেরপুরে সেবার মান নিশ্চিতকরণে নাগরিক কমিটির মতবিনিময় রাষ্ট্রদ্রোহী মামলায় অভিযুক্ত হলেন সাংবাদিক মৌলভীবাজারে “মেছো বাঘ” হত্যার দায়ে সাজা

নৌকার নাজেহাল অবস্থায় শঙ্কিত হাইকমান্ড

সদ্য সমাপ্ত ইউপি নির্বাচনে নৌকার ভরাডুবিতে শঙ্কিত হাইকমান্ড এবার নড়েচেড়ে বসছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে। স্থানীয় সরকার তথা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আদৌ নৌকা প্রতীক দেয়াটা কতটা যুক্তিযুক্ত তা নিয়ে শোরগোল চলছে সারা দেশেই। প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে ৬০ শতাংশ নৌকা ইতোমধ্যেয় শোচনিয় ও হাস্যকর রেজাল্ট করেছে। যা ভোবাচ্ছে হাই কমান্ডকেও। কথা গেছে স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কানেও। তাই আগামীতে নৌকা প্রতীক গ্রাম্য নির্বাচনে জুটবে কিনা তাও পড়েছে দোটানাতে। দেশের সর্ববৃহৎ রাজনৈতিক দল বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া আওয়ামী লীগ তথা নৌকাকে বিতর্কীত করার জন্য সুদুর প্রসারী কোন ষড়যন্ত্র কাজ করছে কিনা তাও মনে হয় দেখার সময় এসেছে।

এ দলটির মাঠ পর্যায়ের নেতা কর্মীরা প্রকাশ্যেই ক্ষোভ উগড়াচ্ছে। যদিও তাদের কথা কেউ শুনছে কি না, তা কিছু দিনের মধ্যেই পরিষ্কার হয়ে যাবে। বিশেষ করে নৌকার বেশ কিছু প্রার্থীর  ভোটে জামানত বাজেয়াপ্তর ঘটনা ত্যাগী নেতাকর্মীরা কোন ভাবেই মেনে নিতে পারছেন না্ । বিএনপি বিহীন এ নির্বাচনে নৌকা জামানত হারালে  শঙ্কিত ও লজ্জিত হতে হই বৈকি। তাই দলের ভিতরে বাহিরে একই রব উঠেছে যে, ছোট ছোট নির্বাচন বা মাঠ পর্যায়ের ইউনিয়ন নির্বাচন বা পৌর নির্বাচনে যেন নৌকা প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া না হয়।

তবে আমরা মনে করি বিতর্কীত ব্যক্তিদের নৌকা দেওয়াতেই নৌকার হালে পানি স্বল্পতা দেখা যাচ্ছে। বিশেষ করে নেতাকর্মী

শূন্য হাম্বড়া হাবের নেতা, বিতর্কীত, হাইব্রীড, কাউয়া, অনুপ্রবেশকারী, রাজাকার পরিবারের সদস্য ইত্যাদি নানা অভিযুক্ত ব্যক্তিদেরকে নৌকা দেয়ার কারণেই এমন লজ্জা আনয়নকারী রেজাল্ট হয়েছে।

তাই সংবাদ কর্মী হিসেবে আমাদের বক্তব্য হলো সঠিকভাবে যাচাইবাছাই না করে বা গোপন অর্থ লেনদেন করে যারা নৌকার জন্য কেন্দ্রে বা স্বয়ং প্রধান মন্ত্রীর কাছে সুপারিশ করেছে, তাদেরকে কঠিনভাবে বিচারের মুখোমুখী করা হোক।

——-সাংবাদিক সজীব আকবর।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com