সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:৩৪ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
তামুলপুরে মুখ‍্যমন্ত্রী ডঃ হিমন্ত ১১শ ৫ জন প্রাক্তন ক‍্যাডারদের মাঝে ৪লক্ষ টাকার ফিক্সড ডিপোজিট সার্টিফিকেট বিতরণ করলেন। রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির শ্রেষ্ঠ স্বেচ্ছাসেবকদের সম্মাননা ও পুরস্কার প্রদান শেরপুরে শীত বাড়াতে লেপ-তোষক তৈরিতে ব্যস্ত কারিগররা          আম গাছে ঝুলছিল স্কুল ছাত্রীর লাশ অর্থ আত্মসাৎ অভিযোগে নায়িকা জ্যাকুলিন আটক চন্দনাইশের সাতবাড়ীয়া নির্বাচনে সাফাত বিন ছানাউল্লাহ্’র মনোনয়নপত্র সংগ্রহ মানবিক মেম্বার আলম হাওলাদারের সাথে ড্রিম লাইট’র সৌজন্য সাক্ষাৎ শেরপুরে সেবার মান নিশ্চিতকরণে নাগরিক কমিটির মতবিনিময় রাষ্ট্রদ্রোহী মামলায় অভিযুক্ত হলেন সাংবাদিক মৌলভীবাজারে “মেছো বাঘ” হত্যার দায়ে সাজা

লাখাইয়ে চড়াদামেই বিক্রি হচ্ছে শীতের সবজি

নিজস্ব প্রতিনিধি, লাখাই, হবিগঞ্জঃ
শীত আসতে বাকি আরো কিছুদিন। তবে এরই মধ্যে বাজারে আসতে শুরু করেছে শীতের সবজি। লাখাই উপজেলার বাজারগুলোতেও তাই চড়া দামেই বিক্রি হচ্ছে এসব সবজি।  আবার শাক খেতে পছন্দ করেন এমন ক্রেতাকে ব্যয় করতে হচ্ছে বাড়তি টাকা। তবে এক্ষেত্রে কিছুটা স্বস্তিতে আছেন আমিষভোজীরা। স্থিতিশীল রয়েছে মাছের বাজার।  মঙ্গলবার বুধবার  উপজেলার লাখাই বাজার সহ বিভিন্ন এলাকার বাজার ঘুরে এমন চিত্রই উঠে এসেছে।
এখন প্রতি কেজি শিম কিনতে একজন ক্রেতাকে গুনতে হয়েছে ৯০ থেকে ১০০ টাকা পর্যন্ত। আর মাঝারি আকারের ফুলকপির জন্য লাগছে ৬৫ থেকে ৭০ টাকা কেজি ।
চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে পাকা টমেটো ও গাজরও। এ দুটি সবজি কিনতে ক্রেতাদের কেজিতে ৮০ থেকে ১০০ টাকার  ব্যয় করতে হচ্ছে। তবে  পটোল, মুখিকচুসহ কিছু সবজি তুলনামূলক কম দামে কিনতে পারছেন ক্রেতারা।
এছাড়া ঝিঙের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকা,  ৬০, চিচিঙ্গা ৩০ থেকে ৪০, পটোল ৩০ থেকে ৪০, কাঁচা পেঁপে কেজিপ্রতি ২০  টাকা ও কাঁচকলার হালি ২৫ থেকে ৩০ টাকার আলি মধ্যে। এ সবজিগুলোর দাম সপ্তাহের ব্যবধানে ৫ থেকে ১০ টাকা করে কমেছে মধ্যে।  কাঁচামরিচ বিক্রি হচ্ছে ১০০ টাকা কেজিতে।
বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বাজারে শীতের সবজির সরবরাহ বাড়তে শুরু করেছে। তাই আগামী কয়েক দিনের মধ্যে শীতকালীন সবজির দাম সহনীয় পর্যায়ে আসবে।  লাখাই বাজারের  কাঁচাবাজারের সবজি বিক্রেতা সাজিজুল ইসলাম  জানান, তিন সপ্তাহ ধরে চড়া দামেই কিনতে হচ্ছে শিমসহ অনেক সবজি।  আমাদের গাড়ি ভাড়া সহ খরচ পড়ে তাই  দামে বিক্রি করতে হয়  অবশ্য আগের তুলনায় বাজারে সরবরাহ বেড়েছে।
এদিকে যেকোনো ধরনের শাক কিনতেই ক্রেতাদের চড়া দাম দিতে হচ্ছে। তবে অন্যান্য শাকের তুলনায় লাল শাকের দাম একটু বেশি। ছোট এক আঁটি লাল শাকের জন্য ক্রেতাদের ২০ থেকে ৩০ টাকা গুনতে হচ্ছে। মুলা শাক বিক্রি হচ্ছে  ৩০ টাকা কেজি   বিক্রি হচ্ছে কলমি শাক।
তবে দাম বেশি থাকলেও আগাম শীতের সবজির জন্য অনেক ক্রেতাই বেশি টাকা ব্যয় করতে খুব কার্পণ্য করছেন না।
এ বিষয়ে কথা হয় বাজারের সামাদ মিয়া, ক্রেতা  সঙ্গে। তিনি বলেন, বাজারে নতুন এসেছে তাই ৮০ টাকা কেজি  দিয়ে  ফুলকপি কিনেছি। সাইজ হিসেবে দাম অনেক বেশি।  ফুলকপি দিয়ে কোনো রকমে একবেলার রান্না হবে। একবেলার এক সবজির দামই ৮০ টাকা! এটা নিশ্চয় কম না।
সবজির এমন চড়া বাজারের বিপরীতে ক্রেতাদের স্বস্তি দিচ্ছে মাছ।  দাম স্বাভাবিক রয়েছে মাছের বাজারে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com