বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ০৭:২০ পূর্বাহ্ন

চুয়াডাঙ্গা পাসপোর্ট অফিসের ভুয়া চাকরীর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির গুজবে প্রার্থীরা হয়রান

জনি আহমেদ, নিজস্ব প্রতিনিধি, চুয়াডাঙ্গা:

 

 

বর্তমান সচেতনতার যুগেও প্রযুক্তির মাধ্যমে প্রতারণা ফাঁদ যেন বেড়েই যাচ্ছে। অনলাইনের মাধ্যমে পণ্য ক্রয় বিক্রয়সহ বিভিন্ন ভুয়া নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির পোস্ট দেখা যায় বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও। বর্তমানে মানুষের মধ্যে চাকরীর প্রয়োজন বেশি হওয়ায় এ সুযোগ কাজে লাগাচ্ছে প্রতারক চক্র।

তেমনই এক প্রতারণার অংশ হিসেবে (জরুরী ভিত্তিতে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস, চুয়াডাঙ্গা, সদর উপজেলা সমন্বয়: ২৪.২৭১২৬৫৫২,৯০,৭৮৬২৩৮৬। মহিলা-পুরুষ উভয়ই আবেদন করতে পারবেন।

পদের নাম ১। হেল্প ডেস্ক/তথ্য প্রদান

২। পুরুষ কাউন্টার

৩। মহিলা কাউন্টার

৪। স্পেশাল কাউন্টার।

শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা: স্বীকৃত বোর্ড হইতে উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) বা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ।

 

 

পদের সংখ্যা : নির্ধারিত নয়,

বেতন: বেসিক পে টিএ-ডিএ, ডিউটি: ৮ ঘণ্টা,

সাপ্তাহিক ছুটি : ২দিন, বয়স : ১৮ থেকে ৪০ বছর।

এমন কথা লিখে এক বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে প্রায় ২/৩ দিন ধরেই ফেসফুক গ্রুপ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঘুরপাক খাচ্ছে। এ বিজ্ঞপ্তি নিয়ে চুয়াডাঙ্গা জেলাজুড়ে চলছে আলোচনা-সমালোচনা।

তবে এ পাসপোর্টের ভুয়া নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির পোস্টারটি বিপুল কুমার গোস্বামী নামে একজনের ফেসবুক আইডি থেকে পোস্টটি ছড়ানো হয়েছে এমন চাকরীর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির প্রতারণার গুজব। যাতে নেই কোনো সীল স্বাক্ষর কিংবা স্মারক নম্বরও। এতে বিভ্রান্তিতে পড়েছেন চাকরি প্রত্যাশীরা।
এ বিষয় নিয়ে চুয়াডাঙ্গা পাসপোর্ট অফিসের মানুষও বিব্রত। তারা বলছে, এ গুজব ছড়ানোর পর থেকে তাদের কাছে নানা জায়গা থেকে ফোন আসছে। আসলে বিজ্ঞপ্তিটি ভুয়া।

 

 

এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, পাসপোর্ট অফিসের নিয়োগ আসে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কার্যালয় সরকারি নিয়ম অনুযায়ী বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে। যেখানে নিয়োগের যাবতীয় তথ্যসহ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তার নাম ও স্বাক্ষর থাকবে। তবে ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া পোস্টারটি মোবাইল ফ্রন্ট এর মাধ্যমে লেখা হয়েছে। এমনটা অনেকেরই সন্দেহ হয়। আবার সেখানে [email protected] যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে ই-মেইলের মাধ্যমে। যার সাথে পাসপোর্ট অফিসের কোন মিল নেই। বলা হয়েছে, যাদের সাথে মেসেজ দিয়ে যোগাযোগ করা হবে তারা আবেদনপত্রের টাকা পরিশোধ করবে।

এ বিষয়ে চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী সাজিদুর রহমান বলেন, প্রথমে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেখে আমিও আবেদন করতে চাচ্ছিলাম। পরে ভালোভাবে পোস্ট দেখে বুঝলাম এটা ভুয়া। আমি একটু ভালোভাবে দেখার কারণে বুঝতে পেরেছি, কিন্তু যারা ভালোভাবে দেখবেন না তারা না বুঝে প্রতারিত হবে। এই গুজব ঠেকাতে পুলিশ প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে তৎপরতা বৃদ্ধি করতে হবে। তা নাহলে অনেক শিক্ষার্থীই ক্ষতিগ্রস্থ হবে। যা দেখভালের দায়িত্ব রাষ্ট্রের রয়েছে।

 

এ বিষয়ে আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস চুয়াডাঙ্গার সহকারী পরিচালক  গোলাম ইয়াসীন বলেন, নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির বিষয়টি সম্পূর্ণ ভুয়া। এ ব্যাপারে আমাদের কাছেও কোনো তথ্য নেই। এছাড়া আমাদের অফিসের নিয়োগ আসে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কার্যালয় থেকে নির্দিষ্ট প্রক্রিয়া অনুসরণ করে। এভাবে পোস্টার করে নয়। এ বিষয়ে জেলা প্রশাসন ও জেলা পুলিশকে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে।

 

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com