শনিবার, ২১ নভেম্বর ২০২০, ০৭:৫৪ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
ধামরাইয়ে সুয়াপুর ইউনিয়নে ব্রীজের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন উপলক্ষে বিশাল জনসভা নাটোরে মাস্ক ব্যবহার না করার অপরাধে ৪০ জন আটক মাধবপুরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শহীদ মিনার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান গাজীপুরে পোশাক নারী শ্রমিক গণধর্ষণের শিকার ত্রিশালে রাস্তার দূর্ভোগে লালপুর-কৈতরবাড়ী ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজা হলে অপরাধীদের মধ্যে ভীতিও থাকবে: কাদের ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড প্রস্তাব মন্ত্রিসভায় অনুমোদন পাহাড়পুর একিয়া ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিনব কায়দায় রোগীর সাথে প্রতারণা নবাবগঞ্জে অজ্ঞাত পরিচয় নারীর লাশ উদ্ধার মাধবপুরে করোনার ভাইরাসের সুযোগে বালু খেকোদের রমরমা ব্যবসা

হযরত শাহ আলী উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নার্গিস আক্তারের খুঁটির জোর কোথায়?

খবরের আলো  :

 

 

মোঃ আমিন হোসাইন : রাজধানী মিরপুর শাহ আলী থানায় অবস্থিত হযরত শাহ আলী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। আর এই স্কুলটি ছিল মিরপুর এর একটি সুনামধন্য স্কুল কিন্তু বর্তমানে স্কুলটি ধ্বংসের দিকে ধাবিত হচ্ছে। নাই তেমন কোন শিক্ষার মান। কমছে শিক্ষার্থীদের পাশের হার। আর স্কুলটি তৈরী হচ্ছে একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। এসএসসি পরীক্ষা শুরু হলেই চলে ফরমফিলাপের রমরমা বানিজ্য। আর এই বানিজ্যের প্রধান পৃষ্ঠপোষক নাকি অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা নার্গিস আক্তার । আমি প্রধান শিক্ষকের নানা অনিয়ম উঠে এসেছে আমাদের মাঝে লিখিত আকারে । অনুসন্ধানে জানা যায় গত ২১/০২/২০০২ইং তারিখে বহুল প্রচলিত “দৈনিক প্রথম আলো” পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে একজন প্রধান শিক্ষক নিয়োগ করা হয়। ২০০২ সালে বিএনপি জামায়াত জোট সরকারের সময় জামাতের কেন্দ্রীয় নেতা হারুন অর রশিদের স্ত্রী নার্গিস আক্তার সরকারি বিধিবিধান ও সমস্ত প্রকার জালিয়াতির মাধ্যমে কোন অভিজ্ঞতা ছাড়াই প্রধান শিক্ষক হিসাবে নিয়োগ প্রাপ্ত হন। তার এই নিয়োগটি অবৈধ বলে অত্র বিদ্যালয়ের শিক্ষক মোঃ জালাল উদ্দিন বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন এবং পরবর্তীতে বিভিন্ন অসৎ উপায়ে সে মামলাটি ডিসমিস করেন। এবং বর্তমানে তার নামে একটি চলমান মামলা রয়েছে। মামলা নং-৩৫২/২০০৪ এবং এই মামলার শুনানীর তারিখ পড়েছে আগামী ১৩/০১/২০১৯ইং তারিখে। মুঠোফোনে প্রধান শিক্ষক নার্গিস আক্তার এর সাথে কথা বললে তিনি এই প্রতিবেদকে জানায় আমার বিরুদ্ধে আনিত সমস্ত অভিযোগ মিথ্যা। আমাকে হেয় প্রতিপন্য করার লক্ষে কিছু লোক আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা রটাচ্ছে। অনুসন্ধানে জানা যায় তার প্রধান শিক্ষক নিয়োগ হওয়ার পর থেকে তার আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয় নাই। তার পর থেকে ম্যানেজিং কমিটিকে ম্যানেজ করেই চলছে প্রধান শিক্ষকতা।

কোন ভাবেই কেউ থামাতে পারছে না। তার অনিয়োম ও দূর্নীতির মাত্রা। সে বর্তমানে অত্র প্রতিষ্ঠান থেকে ৯৬ হাজার টাকা বেতন আদায় করে বলে জানা যায়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কিছু অভিভাবক মুঠোফোনের মাধ্যমে জানায় বর্তমান শিক্ষক নার্গিস আক্তার একজন দূর্নীতিবাজ অসৎ প্রধান শিক্ষক। তার দ্বারা আমাদের বাচ্চাদের ক্ষতি হচ্ছে। তাই সাধারণ অভিভাবকের দাবী যে একজন যোগ্য সৎ প্রধান শিক্ষকের মাধ্যমে হযরত শাহ্ আলী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পূর্বের রূপ ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ও শিক্ষা অধিদপ্তরের উর্ধোতন কর্মকর্তাদের কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করে। বিস্তারিত দেখতে চোখ রাখুন পরবর্তী প্রতিবেদনে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018 Dailykhaboreralo.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com